Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Indian Army-না হারার গল্প, ভারতীয় সেনায় যোগ কাশ্মীরে শহিদ মেজরের স্ত্রীর

এ যেন এক হার না মানার গল্প। স্বামীকে হারালেও, প্রতিপক্ষকে শিক্ষা দিতে জ্যোতি নানওয়াল যোগ দিলেন ভারতীয় সেনায়। 

Late Major Deepak Nainwal wife joins Indian Army bpsb
Author
Kolkata, First Published Nov 21, 2021, 11:25 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

মায়ের জন্য গর্বিত। ১১ বছরের ছোট্ট লাবণ্যের (Lavanya Nainwal) মুখে এখন শুধু মায়ের কথা। ভারতীয় সেনার শহিদ (Indian Army Major) মেজর দীপক নানওয়ালের (Late Deepak Nainwal) স্ত্রী যোগ দিলেন ভারতীয় সেনায় (Indian Army)। এ যেন এক হার না মানার গল্প। স্বামীকে হারালেও, প্রতিপক্ষকে শিক্ষা দিতে জ্যোতি নানওয়াল (Jyoti Nainwal) যোগ দিলেন ভারতীয় সেনায়। লেফটেনান্ট পদ (Lieutenant-rank officer) অলংকৃত করেন তিনি। 

জম্মু ও কাশ্মীরে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াই করা দেশের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারকারী ভারতীয় সেনা মেজরের মেয়ে লাবণ্য জানাল তার মা বিশ্বের সেরা মহিলাদের একজন। লাবণ্য বলে আমি আমার মাকে নিয়ে খুব গর্বিত বোধ করছি, তিনি সবসময় বলতেন যে তিনি একজন আর্মি অফিসার হবেন এবং আজ তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করেছেন। তিনি বিশ্বের সেরা মা। জ্যোতি নানওয়াল চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং একাডেমিতে ১১ মাসের একটি কঠিন প্রশিক্ষণ প্রোগ্রাম শেষ করার পর শনিবার যোগ দেন ভারতীয় সেনায়। 

১৫৩ জন ভারতীয় ক্যাডেট (১২৪ জন পুরুষ এবং ২৯ জন মহিলা) লেফটেন্যান্ট-ব়্যাঙ্ক অফিসার হিসাবে সেনাবাহিনীতে কমিশন পেয়েছেন জ্যোতি। আফগানিস্তান, মালদ্বীপ এবং ভুটানের মতো দেশগুলির থেকে ২৫জন কর্মী (১৬ জন পুরুষ এবং ১৯ জন মহিলা) আর্মি ওটিএ-তে এই কোর্সে অংশগ্রহণ করেছিলেন। যখন তারা কমিশন লাভ করছিল, ব্যান্ডটি আইকনিক "কদম কদম"  গেয়ে উদযাপন করেন। এই গানটি ভারতীয় জাতীয় সেনাবাহিনীর (আইএনএ) রেজিমেন্টাল কুইক মার্চ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে, যার নেতৃত্বে ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু। 

সেনাবাহিনীর ভাইস চিফ, লেফটেন্যান্ট জেনারেল সিপি মোহান্তির তত্ত্বাবধানে মেজর পরমেশ্বরন ড্রিল স্কোয়ারে পাসিং আউট প্যারেড আয়োজন করা হয়। এই প্যারেডে তরুণ অফিসারদের নির্ভীকভাবে বাঁচতে এবং মাথা উঁচু করে হাঁটার আহ্বান জানানো হয়। 

Missile Destroyer-চিন-পাকিস্তানকে চমকে ভারত পাচ্ছে ভয়ঙ্কর গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার

একাডেমি থেকে উত্তীর্ণদের মধ্যে এমন অনেকে রয়েছেন যারা সশস্ত্র বাহিনীতে যোগদানকারী প্রথম ব্যক্তি নিজেদের পরিবারে। তাদের নিজ নিজ পরিবারে প্রথম, আবার কেউ কেউ দ্বিতীয় বা তৃতীয় প্রজন্মের সেনা আধিকারিক হয়েছেন। এর মধ্যে দুজন বীর নারী হিসেবে যোগ দেন। এই বীর নারীরা নিজেদের স্বামীদের যুদ্ধে হারিয়েছেন।  

তাদের কোর্স এবং কমিশনিং শেষ করার পরে, ভারতীয় সেনাবাহিনীর এই বীর সেনারা দেশের বিভিন্ন অংশে ঘুরে বেড়াবেন, দেশের নানা সেবা করবেন ও মাতৃভূমিকে রক্ষা করার শপথ নিয়ে জীবন অতিবাহিত করবেন। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios