ক্রিকেটার হলেও বরাবরই সেনাবাহিনীর প্রতি আকর্ষণ ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির। আর এই বছর স্ভাধীনতা দিবসটা তিনি কাটাচ্ছেন একেবারে স্বপ্নের মতো। আগেই সেনা সূত্রে জানা গিয়েছিল প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ১৫ অগাস্ট লাগাখে এক অনুষ্ঠানে তেরঙ্গা পতাকা উত্তোলন করবেন। নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি কোথায় আসবেন জানানো হয়নি।  তবে বুধবার রাতে তাঁকে দেখা গেল লাদাখের সেনা হাসপাতালে।

কর্নেল ধোনি অবশ্য সেলিব্রিটি হিসেবে একা আসেননি। লাদাখ আর্মি জেনারেল হাসপাতালে তিনি উপস্থিত হন ১০৬ টিএ আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গেই। তিনি সেখানকার রোগীদের সঙ্গে কথা বললেন। তার আগে তিনি উপত্যকার আর্মি সদভাবনা স্কুলের শিশুদের সঙ্গেও সময় কাটান।

১৫ অগাস্টও কর্নেল ধোনির ঠাসা কর্মসূচি রয়েছে। সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, ধোনি এদিন যাবেন সিয়াচেনে। সেখানে সেনা শিবিরে সেনা সদস্যদের সঙ্গে কথা বলবেন। সম্ভবত সেখানেই তেরঙ্গা উত্তোলন করবেন প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক। সিয়াচেন ওয়ার মেমোরিয়ালেও যাওয়া কথা তাঁর। সেখানে শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করবেন প্যারাসুট বাহিনীর সাম্মানিক লেফট্যানেন্ট কর্নেল।

গত ৩১ জুলাই ধোনি ১০৬ নম্বর রেজিমেন্টে যোগ দিয়েছিলেন। তারপর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল হয়েছে। কাশ্মীরে চলছে একটানা কার্ফু। তারমধ্য়েই উপত্যায় আর পাঁচজন সেনা সদস্যের মতোই তিনি ভোরে উঠে টহলদারির কাজ সামলিয়েছেন। সেনাদের সঙ্গে যুদ্ধের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। আর সবচেয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন সেনাদের সঙ্গে ভবিবল খেলে। ১৫ অগাস্টই জম্মু-কাশ্মীরে তাঁর শেষ দিন। এরপরই ফের নিজের নিয়মিত জীবনে ফিরে আসবেন এই মহান ক্রিকেটার।