এতদিন চলছিল আদালতের বাইরে। মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন নিয়ে নাটক সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে পৌঁছল। এনসিপি-কে সরকার গঠনের জন্ঠয এদিন রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত সময় দেওয়া হলেও, এদিন রাজ্যপাল বিএল কোশিয়ারি মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করেছেন বলে জানা যায়। এরপরই তাঁর এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে মামলা করল শিবসেনা।

একই সঙ্গে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে 'বিজেপির কতায় তাড়াহুড়ো' করার অভিযোগও এনেছে মহারাষ্ট্রের গেরুয়া পার্টি। শিবসেনা সোমবার রাতে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের দাবি জানালেও সমর্থনের চিঠি পেশ করার জন্য তিনদিন অতিরিক্ত সময় চেয়েছিল। কিন্তু, রাজ্যপাল তাঁদের সেই সময় দেননি। শিবসেনার প্রশ্ন তুলেছে, বিজেপিকে সরকার গঠনের জন্য ৪৮ ঘন্টা সময় দেওয়া হল, কিন্তু, তাদের বেলায় ২৪ ঘন্টা দেওয়া হল কেন? এরপরই তারা অভিযোগ করে রাজ্যপাল বিজেপির কথাতেই এই তাড়াহুড়ো করেছেন।

তবে রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করছেন, এই খবর ছড়িয়ে পড়ার আগে থেকেই আইনি পথে হাঁটার প্রস্তুতি শুরু করেছিল শিবসেনা। এদিন সকালেই কংগ্রেস নেতা তথা বিশিষ্ট আইনজীবী কপিল সিব্বল-কে ফোন করে এই বিষয়ে আইনি পরামর্শ চেয়েছিলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে।

অন্যদিকে জানা যাচ্ছে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির জন্য রাজ্যপাল কোশিয়ারি যে সুপারিশ করেছিলেন তা মেনে নিয়েছে নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রীসভা।