জম্মু কাশ্মীর-কে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করার পর সীমান্তের পরিস্থিতি থমথমে। আর এই পরিস্থিতিতে কাশ্মীরের মহিলা ও শিশুদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রাপ্ত পাকিস্তানি সমাজকর্মী মালালা ইউসুফজাই। 

সম্প্রতি কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে মালালা লেখেন, 'কাশ্মীরের মানুষ সংঘাতের মধ্যে ছিলেন যখন আমি ছোট ছিলাম, যখন আমার বাবা-মা'ও ছোট ছিলেন, যখনন আমার দাদু-ঠাকুমাও তাঁদের যৌবনকালে ছিলেন। তবে আজ আমি সবচেয়ে উদ্বিগ্ন কাশ্মীরে বসবাসকারী মহিলা এবং শিশুদের নিয়ে, কারণ যে কোনও সংঘাতে, তাঁদেরই সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।'

সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে মালালা আরও লেখেন, 'আমি কাশ্মীরের জন্য চিন্তা করি কারণ দক্ষিণ এশিয়া আমার বাসভূমি- যে বাসভূমিতে কাশ্মীরি-সহ ১.৮ মিলিয়ন মানুষ বসবাস করেন। আমরা বিভিন্ন সংষ্কৃতি, ধর্ম, ভাষাভাষির প্রতিনিধিত্ব করি, এবং আমি বিশ্বাস করি আমরা সকলেই কিন্তু শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে পারি। আমরাই এই সকল মানুষের তরফে এই বিশ্বকে দেওয়া উপহারের মর্ম উপলব্ধি করতে পারি বলেও আমার বিশ্বাস।'

 

নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করে মালালা লেখেন, 'আমার মনে হয় না যে একে অপরকে আঘাত করার কোনও প্রয়োজন রয়েছে। আজ আমি কাশ্মীরে বসবাসকারী শিশু এবং মহিলাদের নিরাপত্তার বিষয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন।' তবে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, 'আমাদের যে বিষয়েই মতবিরোধ হোক না কেন সবার আগে প্রয়োজন মানবাধিকার রক্ষা করা, শিশু ও  মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা এবং প্রায় সত্তর বছরের পুরনো সংঘাতের শান্তিপূর্ণ সমাপ্তি ঘটানো হোক।'