চেন্নাইতে ডিএমকে নেতা করুণানিধির মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও উঠে এলে কাশ্মীর প্রসঙ্গ। কাশ্মীর ইস্যুকে হাতিয়ার করেই ফের একবার বিরোধী দলগুলিকে নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বার্তা দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

এ দিন চেন্নাইতে তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এম করুণানিধির মূর্তি উদ্বোধন করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ডিএমকে নেতা স্ট্যালিনই এই অনুষ্ঠানের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন তৃণমূলনেত্রীকে। 

আরও পড়ুন- ৩৭০ প্রত্যাহারে কি সমর্থন, বিতর্কে না ঢুকে কৌশলী মমতা, দেখুন ভিডিও

বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ দিন কাশ্মীর প্রসঙ্গে মমতা বলেন, 'আমরা সত্যিই চিন্তিত। একেক সময় রাজনৈতিক দল কোনও সিদ্ধান্ত নিতেই পারে। কিন্তু তা নেওয়ার আগে সেই রাজ্যের মানুষের আস্থা অর্জন করা উচিত। তারা যদি তামিলনাড়ুর জন্য কোনও সিদ্ধান্ত নেয়, তাহলে তা এখানকার মানুষের সঙ্গে কথা বলে নেওয়া উচিত। আবার পশ্চিমবঙ্গের জন্য কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, তাহলে বাংলার মানুষের আস্থা আগে অর্জন করা উচিত।'

এর পাশাপাশি জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাকে গৃহবন্দি রাখা নিয়েও সরব হন মমতা। তিনি বলেন, 'আমি ভেবেছিলাম আজকের এই অনুষ্ঠানে ফারুক আবদুল্লাজি আসবেন। কিন্তু উনি আসতে পারেননি। গতকাল আমি একটি ভিডিও-তে দেখলাম যে উনি নিজের মেয়ের বাড়িতে যেতে পারছেন না বলে কাঁদছেন।'

প্রসঙ্গত চেন্নাই উড়ে যাওয়ার সময়ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের সমর্থনে বিল যেভাবে পাশ করানো হয়েছে, তার পদ্ধতি নিয়ে আপত্তি জানান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে ওমর আবদুল্লা, মেহবুবা মুফতির মতো গ্রেফতার হওয়া রাজনৈতিক নেতাদেরও অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়েছিলেন মমতা।