উত্তর প্রদেশের বর্তমান অবস্থা নিয়ে গোটা দেশেই গণমাধ্য়মে নানা শিরোনাম হয়। কখনও সাংবাদিক নিগ্রহ, কখনও যাদব হত্যা, কখনও বা অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডের পুনর্নবীকরণ, যোগী রাজ্য সংবাদ শিরোনামেই। তবে এবার সম্ভবত সবচেয়ে মর্মস্পর্শী ঘটনাটি ঘটল। যোগী রাজ্যের এক বাসিন্দা স্বেচ্ছামৃত্যুর সম্মতি চেয়ে চিঠি দিলেন প্রধানমন্ত্রীকে। 

কেন এই আবেদন? উত্তর প্রদেশের হাতরাস জেলার  কৃষিজীবী চন্দ্রপাল সিংহের বক্তব্য বছরের পর বছর দ্বারে দ্বারে ঘুরেও পরিশ্রুত খাবার জল জোগাড় করতে পারেননি তিনি। অগত্যা উপায়ন্তর না দেখেই তিন মেয়ে সহ নিজের স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন রেখেছেন তিনি।

চন্দ্রপালের সাফ দাবি, নোনতা দূষিত এই জল খেয়ে এই এলাকার মানুষ এমনিতেই মরণাপন্ন। এভাবে বেঁচে থেকে কী লাভ। অভিযোগ বহু গবাদি পশুরও  মৃত্যু হয়েছে এই জল খেয়ে। গ্রামের অনেকের বাকশক্তি চলে গিয়েছে। কিন্তু প্রশাসন কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি। সামান্য জলের জন্যে অন্তত চার কিলোমিটার পাড়ি দিতে হয়। এই অসহায়তা আর মেনে নিচে পারছেন না চন্দ্রপাল।

গোটা ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই হইচই পড়ে গিয়েছে।  প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকেও তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি এসেছে। দেওয়ালে পিঠ ঠেকা চন্দ্রপাল জানেন এই প্রতিশ্রুতি পালন না হলে তাঁর জন্যে আর কোনও রাস্তাই খোলা  থাকে না।