রাস্তা দিয়ে যেতে গিয়ে ভারতী জৈন একটা হনুমানকে পরে থাকতে দেখেন। আহত হনুমানের অবস্থা এতটাই খারাপ যে উঠতে পারছিল না। রাস্তার এক কোনে মাথা গুঁজে পড়ে থাকে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই হনুমানটিকে দেখে কষ্ট পান ওই সংবাদকর্মী। হনুমানটির ছবি তুলে তিনি  টুইটারে পোস্ট করেন। মানেকা গান্ধীকে ট্যাগ করে ভারতী জৈন লেখেন, 'রাস্তায় খুব খারাপ অবস্থায় হনুমানটি পড়ে রয়েছে। কোনও এনজিও বা পশু অধিকার নিয়ে সরব কর্মীদের কাছে আবেদন করছি, তাকে যেন উদ্ধার করে।  নয়া দিল্লির রাইসিনা রোডের ওপর হনুমানটি পড়ে রয়েছে।' 

 

পশু প্রেমী হিসেবে মানেকা গান্ধী পরিচিত। আগেও বহুবার রাস্তা থেকে আহত পশুপাখিকে উদ্ধারের নজির মানেকা গান্ধীর রয়েছে। এক ঘণ্টার মধ্য়েই মানেকা গান্ধী ভারতী জৈনকে টুইটারে উত্তর দেন। তিনি টুইটারে লেখেন, 'আপনার পোস্টে আমাকে ট্যাগ করার জন্য ধন্যবাদ। আহত হনুমানটাকে উদ্ধারের জন্য আমি ইতিমধ্যে গাড়ি পাঠিয়েছি। সঞ্জয় গান্ধী অ্যানিম্যাল কেয়ার সেন্টারে ওই হনুমানটিকে নিয়ে এসে চিকিৎসার বন্দোবস্ত করছি।  কয়েক মিনিটের মধ্যে গাড়িটি ঘটনাস্থলে পৌঁছে যাবে।' 

 

সাংবাদিক ভারতী জৈন টুইট করার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই মানেকা গান্ধী হনুমানটিকে উদ্ধারের কাজ শুরু করে দেন। ভারতী জৈন টুইট করার এক ঘণ্টার পর ফের টুইট করেন। সেখানে জানান, উদ্ধারকারীদের দল হনুমানটিকে উদ্ধার করেছে। আশা করছি, যত্ন আর চিকিৎসায়  হনুমানটি ফের সুস্থ হয়ে উঠবে। এরপরেই তিনি টুইটারে মানেকা গান্ধীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।