৬৫তম মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তুলে আনেন সুপার সাইক্লোন আমফানে বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার কথা। তিনি বলেছেন, গোটা দেশ পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার পাশে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন 
গত সপ্তাহেই তিনি আমফান বিদ্ধস্ত পশ্চিমবঙ্গে ও  ওড়িশার পরিস্থিতি ঘুরে দেখেন। ঝড়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু ঘরবাড়ি। উপড়ে গেছে প্রচুর গাছ। চরমতম ক্ষতির মুখোমুখি হতে হয়েছে কৃষকদের। স্থানীয় যে সব মনুষ সাহস ও ইচ্ছেশক্তিনিয়ে প্রবল ওই ঝড়ের মুখোমুখি হয়েছিলেন তাঁদেরও কুর্নিশ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী দেশের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে পঙ্গপালের আক্রমণের কথাও তুলে ধরেন। তিনি বলেন, দেশের পূর্ব এলাকা যখন ঝড়ের কারণে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছ তখনই দেশের অনেক এলাকায় হামলা চালিয়েছে পঙ্গপালের দল। বেশ কয়েক দিন ধরেই হামলা চালিয়েছে পঙ্গপালের দল। ক্ষয় ক্ষতিও হয়েছে ব্যপক পরিমাণে। তিনি আরও বলেন কেন্দ্র রাজ্য সরকার, কৃষি বিভাগ বা স্থানীয় প্রশাসক, কৃষকদের সহায়তার জন্য আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। নতুন কিছু উদ্বাভবন করে কৃষকদের সংকট মোকাবিলা করতে পারব বলেই তিনি আত্মবিশ্বাসী। এমনই দাবি করেছেন তিনি। 

করোনা সংকটকের মধ্যেই ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ে পশ্চিমবঙ্গের দিঘা উপকূলে। এই ঘূর্ণি ঝড়ের কারণে এখনও পর্যন্ত ৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রবল ক্ষতি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশা। অন্যদিকে পঙ্গপালের হামলার দেশের বিস্তীর্ণ এলাকায় প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। তাই মন কি আনুষ্ঠানে এই দুটি প্রসঙ্গ তুলে ক্ষতি গ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানো আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।