ভারতের এক প্রান্তে যখন মানুষ প্রকৃতির খামখেয়ালিপনার শিকার তখন অন্যপ্রান্তে সৃষ্টি হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি। ইতিমধ্যেই টানা বৃষ্টিতে কেরলে ফিরে এসে এক বছর আগের সেই বন্যার ভয়াবহতা। ইতিমধ্যেই কেরলের চার জেলায় জারি করা হল লাল সতর্কতা। মৌসম ভবনের তরফে জানানো হয়েছে যে, আগামী ১৪ অগাস্ট পর্যন্ত কেরলে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

কেরলের পাশাপাশি মহারাষ্ট্র ও মধ্য প্রদেশও বন্যার কারণে যথেষ্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে খবর। মহারাষ্ট্রের কোলাপুর, সাঙ্গিল এবং রায়গড়-এ বন্যা পীড়িতদের উদ্ধারকার্যে নেমছে সেনাবাহিনীর বিশেষ দল। পাশাপাশি মহারাষ্ট্রের কোলাপুরের সিরোল  এলাকায় বন্যা পীড়িতদের উদ্ধারকার্যে নেমেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা পর্যদের কর্মীরা। 

 

মহারাষ্ট্রে বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে বন্যা পীড়িতদের ত্রাণ সাহায্যের কথা বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। একইভাবে বন্যা পরিস্থিতি দেখা গিয়েছে মধ্যপ্রদেশেও। মধ্যপ্রদেশের সাজাপুরে ব্রিজের তলদেশে থাকাক মাক্সি-গুনা রেলওয়ে স্টেশন কার্যত জলমগ্ন হয়ে পড়েছে বলে খবর। 

এই দুই রাজ্যের পাশাপাশি ছত্তিশগড়, গোয়া, মহারাষ্ট্র, গুজরাট, কর্নাটক-এ আগামী দু'দিনে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাদতের সতর্কতা জারি করেছে ভারতের মৌসম ভবন।