ভারতীয় বংশোদ্ভূত মিস ইংল্যান্ড ২০১৯ ভাষা মুখোপাধ্যায় এই মুহূর্তে অতি পরিচিত একটি নাম। না শুধু মিস ইংল্যান্ড ২০১৯-এর কারণেই নয়, তাঁর সামাজিক দায়িত্ব, কর্তব্যবোধের জায়গা থেকেই ভাষার নাম এই মুহূর্তের সকলের মুখে মুখে। 

ছোটবেলা কলকাতায় কাটানো ভাষা মাত্র ৯ বছর বয়সেই ইংল্যান্ডে চলে যান। সেখানেই পড়াশোনা, বেড়ে ওঠা। পেশায় চিকিৎসক ভাষা এরইমাঝে সময় বের করে নাম দেন সৌন্দর্য প্রতিযোগিতাতেও। আর সেখানে থেকেই মিস ইংল্যান্ড ২০১৯-এর খেতাব জয়। 

৮০ তেও নিখুঁত তুলির টান, বৃদ্ধার আঁকা ছবিতে মাত ইতালির এই প্রদর্শনী

তবে এসবের মাঝে কলকাতার প্রতি টানেই ভাষা যুক্ত হলেন এমন এক কাজে, যা অনেকের মতোই বরাবরাই করার স্বপ্ন দেখে এসেছেন তিনি। কল্লোলিনী কলকাতার রাস্তার ধারে শিশুদের পাশে দাঁড়াতে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হন। তবে শুধু যুক্তই নয়, রীতিমতো সাহায্যের জন্য, চ্যারিটির জন্য তহবিলে ফান্ড তোলার ব্যবস্থাও করেন তিনি। 

২৩ বছর বয়সী ভাষা এক সংবাদ মাধ্যমকে জানান, তিনি কলকাতা থেকে ইংল্যান্ডে গিয়েছেন। কলকাতা তাঁর কাছে এবং এই কাজ তাঁর কাছে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। সেই সঙ্গে তিনি এও জানান, এই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় 'বিউটি উইথ আ পারপাজ মিশন'-এর অন্যতম অঙ্গ তাঁর এই কাজ। 

পুজোর দিনে ভেসে যাচ্ছে পাশের রাজ্য, পিগি ব্যাঙ্ক ভেঙে সাহায্যে এগিয়ে এল এই কিশোরী

ভাষা আরও জানান, মিস ইংল্যান্ড প্ল্যাটফর্মকে তিনি এই কাজে ব্যবহার করে মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান। যাতে প্রতিটি মানুষ সুস্থ থাকতে পারে। উল্লেখ্য, ভাষা নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দুটি মেডিকেল ডিগ্রি অর্জন করেছেন, একটি মেডিকেল বিজ্ঞানে এবং অন্যটি মেডিকেল ও সার্জারিতে। তিনি বাংলা, ইংরেজি, ফরাসী, জার্মান এবং হিন্দি পাঁচটি ভাষায় সাবলীল। বর্তমানে ভাষা পূর্ব ইংল্যান্ডের লিঙ্কনশায়ারে জুনিয়র ডক্টর তিনি।