সোমববার সকালে  শ্রীনগরের মৌলানা আজাদ রোডের এক বাজারে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি টহলদার পার্টিকে লক্ষ্য করে একটি শক্তিশালী গ্রেনেড ছোড়ে জঙ্গিরা। হামলায় সীমান্ত সুরক্ষা বলের তিন জওয়ান আহত হয়েছেন। এছাড়া আরও ১৫ জন মতো অসামরিক নাগরিক আহত হন।

আহতদের মধ্যে রিঙ্কু সিং নামে সাহারনপুরের এক বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আইজাজ ও ফয়াজ আহমেদ নামে আরও দুই ব্যক্তির অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা। জঙ্গিদের খোঁজ এখনও না মিললেও পুরো এলাকা ঘিরে রেখে এখনও তল্লাশী অভিযান চালানো হচ্ছে।

এরই মধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে গ্রেনেড হামলার মুহূর্তের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ। এই ফুটেজে দেখা যাচ্ছে সকালে বাজার খোলার পর এলাকায় প্রচুর মানুষের জমায়েত ছিল। রাস্তায় গাড়ির চাপও কম ছিল না। তারমধ্যেই প্রচন্ড আলোর ঝলকানিতে গ্রেনেড বিস্ফোরণ হতে দেখা যায়। তারপরই বাজারে উপস্থিত থাকা লোকজনের মধ্যে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। অনেককেই নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে পালাতে দেখা যায়।

এদিনের এই হামলা গত ১৫ দিনে শ্রীনগরে দ্বিতীয় গ্রেনেড হামলা। গত ২৬ অক্টোবর করণনগরের কাকাসারি এলাকার থানা লক্ষ্য করে প্রথমে গ্রেনেড ছোড়া হয়, তারপর গুলিবৃষ্টি করেছিল জঙ্গিরা। সেই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন ৬ সেনাকর্মী।