নির্ভয়াকে নির্যাতনে সাজাপ্রাপ্ত বিনয় শর্মাকে যেন ক্ষমা না করা হয়। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখে এই আর্জিই জানালেন নির্ভয়ার মা। প্রসঙ্গত, নির্ভয়া কাণ্ডে মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত বিনয় শর্মা প্রাণভিক্ষার আর্জি জানায়। নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া মেনে দিল্লির উপরাজ্যপাল, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ঘুরে সেই আবেদন রাষ্ট্রপতির কাছে পৌঁছেছে। 

ইতিমধ্যেই প্রাণভিক্ষার আর্জি নাকচ করে দিয়েছেন দিল্লির উপ রাজ্যপাল। তিনি তাঁর সুপারিশ- সহ আবেদন পাঠান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে। সেই আবেদনই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে মৃত্যুদণ্ড রদ না করার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফেও সুপারিশ করা হয়েছে। 

নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি পাঠিয়েছেন নির্ভয়ার মা। সেখানে অভিযোগ করা হয়েছে, মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ যাতে কার্যকর না করা যায়, তার জন্যই ইচ্ছাকৃতভাবে এই আবেদন করেছে সাজাপ্রাপ্ত বিনয় শর্মা। সেখানে আরও বলা হয়েছে, 'ওই ঘটনার পর সাত বছর কাটতে চলেছে। আবেদনকারী (নির্ভয়ার মা) যে যন্ত্রণা এতদিন ভোগ করে আসছেন, তা এখন অসহনীয় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। ন্যায় বিচারের জন্য অপেক্ষা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে।'

বিনয় শর্মা ছাড়াও মুকেশ, পবন এবং অক্ষয় নামে আরও তিন অভিযুক্তকে নির্ভয়াকাণ্ডে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়েছিল। বিনয় ছাড়া বাকি তিনজন প্রাণভিক্ষার আর্জি জানায়নি। যদিও দিল্লির একটি আদালত আগামী ১৩ তারিখ চারজনকেই হাজির করানোর নির্দেশ দিয়েছে পুলিশকে। সাজাপ্রাপ্তদের মৃত্যুদণ্ডের আবেদন কী অবস্থায় রয়েছে, তা সাজাপ্রাপ্তদের মুখ থেকেই শুনতে চান বিচারক।

গত ডিসেম্বর মাসে দিল্লির ফাস্ট ট্র্যাক আদালতে নতুন করে আবেদন জানান নির্ভয়ার বাবা- মা। তাঁদের আর্জি ছিল, নির্ভয়া কাণ্ডে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত চার আসামিরই মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দ্রুত কার্যকর করা হয়।