এ বলে আমায় দেখ, ও বলে আমায়। তৃণমূল বিজেপি টানাটানির জেরে হিন্দু দেবদেবীরা  লোকসভায় রীতিমতো অধিষ্ঠান করলেন। 

সোমবারই লোকসভায় প্রথম অধিবেশন ছিল। অধিবেশনের শুরুতেই শপথ বাক্য পাঠ করেন নরেন্দ্র মোদী। তারপরে আসে অন্য সাংসদদের পালা।  লোকসভায় শপথ নেন বাবুল সুপ্রিয়। তাঁর শপথের শুরু থেকে শেষ ট্রেজারি বেঞ্চ থেকে আসে জয়শ্রীরাম ধ্বনি। এরপরে পালা দেবশ্রী চৌধুরীর। ফের একই ছবি দেখা যায় তাঁর ক্ষেত্রেও। জয় শ্রীরাম ধ্বনিতে মুখরিত হয় লোকসভা।

প্রসঙ্গত লোকসভায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হলেও বাংলায় জয় হয়েছে তৃণমূলের। ২২ টি আসন পেয়েছেন তাঁরা। দলনেত্রী নিজেই জয় শ্রীরাম শুনে প্রবল চটে গিয়েছেন। লোকসভায় একই একই দৃশ্য দেখা গেল। পাল্টা দিল তৃণমূলও।স্লোগানেই তাঁরা লড়তে চাইল লোকসভায়।

এদিন প্রসূণ বন্দ্যোপাধ্যায় শপথগ্রহণের শুরুতেই বলেন, জয় হিন্দ। মালা রায়ের স্লোগান ছিল, জয় শ্রীরাম, জয় বাংলা, জয় হিন্দ। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়  শুরু করলেন কালীমন্ত্র দিয়ে, থামলেন জয় বাংলায়। মুখ্যমন্ত্রীর গলাতেও ছিল জয় বাংলা। 

বিশুদ্ধ বাংলায় শপথ নিতে নিতে হঠাৎই রণংদেহী হয়ে উঠলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। বলে উঠলেন , জয় শ্রীরাম, জয় মা কালী, ভারত মাতা কি জয়।

সব দেখেশুনে নিন্দুকরা বলছেন, লোকসভা নাকি ৩৩ কোটি দেবতার উপাসনাস্থলে শপথ নেওয়া হল! তাছাড়া কালী  নিয়ে টানাটানি নিয়েও প্রশ্ন উঠল। এই ৪২ জনকে এক সঙ্গে সংসার করতে হবে আগামী পাঁচবছর। চিন্তা তাঁদের নিয়ে নয়, দেবদেবীর ভবিষ্যৎ নিয়ে।