কাশ্মীরে সেনার সঙ্গে দিন পনেরো কাটিয়ে কাশ্মীর উপত্যকা ছাড়লেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তবে নিজের শহর রাঁচিতে নয়, কাশ্মীর থেকে নেমে তিনি আপাতত নয়াদিল্লিতে স্ত্রী সাক্ষী ও কন্যা জিভার সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তিনি। তবে তার আগে লে-তে স্থানীয় শিশুদের সঙ্গে একপ্রস্থ ক্রিকেট খেলতে দেখা যায় তাঁকে। আর সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আসতেই মুহূর্তে ভাইরাল হল।

অগাস্টের শুরুতেই ১০৬ টেরিটোরিয়াল আর্মির সদস্য হিসেবে কাশ্মীর উপত্যকায় এসেছিলেন তিনি। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর ভারতীয় দল থেকে কয়েক দিনের অব্যাহতি নিয়েছিলেন তিনি। তারপর থেকে উপত্যকায় টহলদারির দায়িত্বে ছিলেন তিনি। সেনা সদস্যদের সঙ্গে তাঁকে ভলিবল খেলতে দেখা গিয়েছিল।

তারপর গত ১৪ অগাস্ট  তিনি এসেছিলেন লাদাখে। লাদাখে আর্মি জেনারেল হাসপাতালে রোগীদের সঙ্গে কথা বলেন। তার পরের দিন তিনি লাদাখে সেনা স্কুলে গিয়ে সেখানকার ছাত্রদেরও উৎসাহ দেন। স্বাধীনতা দিবসের দিন তিনি সিয়াচেনে সেনা ছাউনিতেও যান। সেখানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

দুই সপ্তাহের সেনা জীবন কাটিয়ে এবার ফের পারিবারিক জীবনে ফিরলেন ধোনি। তবে ক্রিকেট মাঠে তিনি কবে ফিরবেন, সেই নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। তাঁর বদলে ভারতের ওয়েস্টইন্ডিজ সফরে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল ঋষভ পন্থকে। কিন্তু তা কাজে লাগাতে পারেননি পন্থ। চারটি ইনিংসেই তিনি উইকেট ছুড়ে দিয়ে এসেছেন। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে দক্ষিণ আফ্রিকা আসছে ভারত সফরে। টি২০ ক্রিকেটে তাঁকে ভারতীয় দলে রাখা হয় কিনা সেটাই দেখার। এর আগে ২০১৮ সালে দেশের মাটিতে ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল টি২০ ক্রিকেটে আর ধোনিকে খেলানো হবে না। পরে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে অস্ট্রেলিয়ায় টি২০ খেলেন ধোনি।