Asianet News BanglaAsianet News Bangla

রহস্য উপহার - দুমাসে সাত-আটবার এল অন্তর্বাস আর সেক্স টয়, পুলিশের দ্বারস্থ মুম্বই অভিনেত্রী

দুমাস ধরে রহস্যময় উপহার পাচ্ছেন মুম্বইয়ের অভিনেত্রী। সমানে কেউ পাঠাচ্ছে অন্তর্বাস আর সেক্স টয়। 
 

Mumbai actress mysteriously receives lingerie and adult toys for past two months ALB
Author
Kolkata, First Published Sep 21, 2021, 8:16 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

চাঞ্চল্যকর ঘটনা। মুম্বইয়ের এক অভিনেত্রীকে কোনও রহস্যময় ব্যক্তি বা গোষ্ঠী, গত দুই মাস ধরে উপহার পাঠিয়ে যাচ্ছে। না কোনও সাধারণ উপহার নয়, পাঠানো হচ্ছে েকের পর েক সেক্সি অন্তর্বাস এবং বিবিন্ন প্রকারের সেক্স টয়। প্রথমদিকে, অভিনেত্রী মনে করেছিলেন, বন্ধুবান্ধবদের মধ্য়েই হয়তো কেউ ঠাট্টা করছে। কিন্তু, দুমাস ধরে ক্রমাগত ওই ধরণের প্রাপ্তবয়স্ক উপহার পাওয়ার পর বিষয়টি আর উপেক্ষা করতে পারেছেন না তিনি। আম্বোলি থানায় হয়রানির অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। দুষ্কৃতীকে ধরতে তদন্ত শুরু করেছে মুম্বই পুলিশ। 

২৮ বছরের ওই অভিনেত্রী থাকেন মুম্বইয়ের যোগেশ্বরী এলাকায়। অগাস্ট মাসে প্রথম তার কাছে েকটি পার্সেল েসেছিল। প্রাপক হিসাবে তার নাম লেখা থাকলেও, প্রেরক কে, সেই বিষয়ে কিছু লেখা ছিল না। খুলেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। পার্সেলে ভরা খুবই খোলামেলা কিছু অন্তর্বাস েবং ভাইব্রেটর। তারপর থেকে গত দুই মাসে ওই ধরণের সাত থেকে আটটি পার্সেল বার এসেছে অভিনেত্রীর ঠিকানায়। সবগুলির মধ্যেই ছিল বিভিন্ন ধরণের হট অন্তর্বাস েবং প্রাপ্ত বয়স্ক খেলনা। শেষ পর্যন্ত পুলিশের কাছে যেতে বাধ্য হন অভিনেত্রী। ফ্রি প্রেস জার্নালের েক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই অভিনেত্রীকে যে পার্সেলগুলি পাঠানো হত, সেগুলি অতি পরিচিত কয়েকটি অনলাইন শপিং পোর্টাল থেকেই পাঠানো হত। 

এই ঘটনায় অভিনেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে একটি যৌন হেনস্থার মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। আম্বোলি থানার এক পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে ফ্রি প্রেস জার্নাল জানিয়েছে, অজ্ঞাত পরিচয় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির আওতায় কোনও মহিলার শ্লীলতাহানি করার উদ্দেশ্যে কোনও শব্দ প্রয়োগ, অঙ্গভঙ্গি করা বা অন্য কোনও কাজ করার অভিযোগ আনা হয়েছে। শপিং পোর্টালগুলিতে অর্ডার দেওয়ার জন্য যে মোবাইল নম্বরগুলি ব্যবহার করা হয়েছিল, সেগুলি ইতিমধ্যেই জোগার করেছে পুলিশ। সেই নম্বর ধরে অপরাধীর অনুসন্ধান করা হচ্ছে। তবে, পুলিশ এখনও ওই ফোন নম্বরগুলির অবস্থান সনাক্ত করতে পারেনি। সেটা হলেই ই মামলার সমাধান হবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios