সার্ভার বসে গিয়ে চরম দুর্ভোগের মুখে মুম্বাই এয়ারপোর্টের যাত্রীরা,বিমানবন্দরের কর্মীদের দিয়েই যাত্রী চেক ইনের সিদ্ধান্ত কর্তৃপক্ষের

| Dec 02 2022, 03:05 AM IST

mumbai airport
সার্ভার বসে গিয়ে চরম দুর্ভোগের মুখে মুম্বাই এয়ারপোর্টের যাত্রীরা,বিমানবন্দরের কর্মীদের দিয়েই যাত্রী চেক ইনের সিদ্ধান্ত কর্তৃপক্ষের
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

সার্ভার বসে গিয়ে চরম দুর্ভোগের মুখে মুম্বাই এয়ারপোর্টের যাত্রীরা। প্রযুক্তিগত ত্রুটির প্রভাবে বিমানবন্দরের কর্মীদের দিয়েই যাত্রী চেক ইনের সিদ্ধান্ত নেন বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের

মুম্বাই এয়ারপোর্টে বিশৃঙ্খলা।সার্ভার বসে গিয়ে চরম দুর্ভোগের মুখে যাত্রীরা। সার্ভার ডাউন থাকার কারণে ছত্রপতি শিবাজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দুটি টার্মিনালের একটিতে কাজ শুরু করা হয় ম্যানুয়ালি।কম্পিউটার বিকল হয়ে পড়ায় বিমানবন্দরের কর্মীদের দিয়েই যাত্রী চেক ইনের কাজ শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন কর্তৃপক্ষ । যার জেরে দীর্ঘ লাইন পরে টার্মিনাল ২ এর প্রবেশদ্বারের সামনে ।জনসমাগমের জেরে বিমানবন্দরে শুরু হয় প্রবল হট্টগোল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তৎপরতা দেখায় মুম্বাই ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট লিমিটেড। এয়ারপোর্ট কর্তৃক জারি করা হয় বিশেষ নির্দেশিকা। যেসব যাত্রীরা চেক ইনে আটকে পড়েছেন তাদের নিজেদের এয়ারলাইনসের সঙ্গে যোগাযোগ করে পরিস্থিতি বুঝিয়ে বলার পরামর্শ দেয় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। মুম্বাই ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট লিমিটেড এক বিশেষ বিবৃতি জারি করে বলেন যে এমন পরিস্থিতির তৈরী করার জন্য তারা আন্তরিকভাবে দুঃখিত যাত্রীদের কাছে।

বিমানবন্দরে প্রযুক্তিগত এই ত্রুটির প্রভাব পড়েছিল বিমান চলাচলেও।এয়ার ইন্ডিয়ার কয়েকটি বিমানের সময়সূচিতে পরিবর্তন করা হয়েছে বলে জানা গেছে । বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জানানো হয়েছে যে নেটওয়ার্কের কেবল ছিঁড়েই নাকি এমন বিপত্তি ও বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। যার কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের।

Subscribe to get breaking news alerts

মুম্বইয়ের টার্মিনাল ২ বা টি২ তে সাধারণত আন্তর্জাতিক বিমান ওঠানামা করে। ঘরোয়া বিমানও চলে এই বিমানবন্দরটিতে। টার্মিনাল ১ থেকে এই দ্বিতীয় বিমানবন্দরে পৌঁছতে গাড়িতে মিনিট কুড়ি সময় লাগে।

মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দেশের দ্বিতীয় ব্যস্ততম বিমানবন্দর। ব্যস্ত সময়ে সেখানে এমন গোলযোগ যাত্রীদের বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা গিয়েছে। ফের কম্পিউটার ব্যবস্থার মাধ্যমে বিমানবন্দরের যাবতীয় কাজ শুরু হয়েছে।