সপ্তাহের শুরুর দিনে সকাল থেকেই ফের বৃষ্টির কবলে বাণিজ্য নগরী মুম্বই। ভারী বৃষ্টিপাত এবং খারাপ আবহাওয়ার ফলে বন্ধ রাখা হয়েছে বিমান পরিষেবা। পাশাপাশি খারাপ আবহাওয়ার জেরে যানবাহনের গতি স্লথ হয়ে গিয়েছে, যার ফলে এদিন সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ট্রাফিক জ্যাম ছিল চোখে পড়ার মতো। 

প্রসঙ্গত, আবহাওয়া দফতর সূত্রে আগে থেকেই খবর ছিল যে, মহারাষ্ট্রের বেশকিছু এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এদিন মুম্বই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর-এর তরফ থেকে একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, সোমবার সকাল ৯.১৫ থেকে মুষলধারে বৃষ্টির জেরে চারিপাশে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল তাতে কার্যত কোনওকিছুই দেখা যাচ্ছিল না। আর সেইকারণেই সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল বিমান চলাচল। তিনি আরও জানান যে, যাত্রী সুরক্ষা সুনিশ্চিত করার জন্যই সাময়িকভাবে স্থগিত রাখা হয়েছে বিমান চলাচল। 

পাশাপাশি ভারী বর্ষণের জেরে সকাল সাড়ে ন'টা নাগাদ বান্দ্রা, ভিলে পার্লে সান্তাক্রুজ-সহ একাধিক এলাকায় কার্যত নাকাল হন নিত্যযাত্রীরা। খারাপ আবহাওয়ার জন্য রাস্তায় রীতিমতো যানজট তৈরি হয়ে যায়। নিত্যযাত্রীদের কথায়, মেট্রোর কাজ চলার জন্য বরিভালি থেকে বান্দ্রা পৌঁছতে সময় লাগছে প্রায় দু'ঘণ্টারও বেশি। একেই খারাপ আবহাওয়া তার ওপর আবার খারাপ রাস্তায় জল জমার কারণে সমস্যা আরও বেড়েছে বলেও জানান নিত্যযাত্রীরা। 

বিশাল ভুমিধসে বন্ধ গঙ্গোত্রী সড়কপথ

এদিন সবথেকে বেশি যানজট তৈরি হয়েছিল জেভিএলআর, ঘাটকোপার থেকে কুরলা, বিদ্যালঙ্কার কলেজ থেকে ওয়াডালা, চেম্বুর ক্যাম্প রোড, ভিকটোলি থেকে ঘটকোপার রোড। ভারতীয় আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, শহরের একাধিক এলাকায়  ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।