৬ই অগাস্ট বাতিল করা হল ৩৭০ ও ৩৫-এ ধারা। ফলে রাতারাতি বদলে গেল কাশ্মীরের পরিস্থিতি। অথচ এই ভুস্বর্গেই একের পর এক ছবির শ্যুটিং-এর জন্য লোকেশন বুক করে রেখেছিলেন বহু পরিচালক। বলিউড থেকে শুরু করে দক্ষিণী ছবি, এই ধারা বাতিল হওয়ার ফলে থমকে যায় শ্যুটিং। পরিবর্তন করা হয় ছবির শিডিউলও। রাজনৈতিক অস্থির অবস্থাকে এড়িয়ে যেতেই একের পর এক প্রযোজক সংস্থা তাঁদের শ্যুটিং-কে নিয়ে সিদ্ধান্ত বদলে ফেলেন। 

তবে এই ঘটনার ঠিক দুদিনের মাথায়ই আশ্বাসবাণী শোনালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রমোদী। তিনি প্রকাশ্যেই এদিন ভাষণে পরিচালক ও প্রযোজকদের উদ্দেশে জানান যে আপনারা আবার আসুন কাশ্মীরে, কাশ্মীরে শ্যুটিং হবে। সঙ্গে এদিন তিনি এও বলেন কাশ্মীরকে শ্যুটিং লোকেশন হিসেবে বেছে নেওয়ার কথা। 

সেরা চলচ্চিত্র আরও পড়ুনঃ বান্ধব রাজ্য উত্তরাখণ্ড, প্রকাশ্যে ২০১৯ চলচ্চিত্র জাতীয় পুরষ্কার বিজেতাদের তালিকা

সম্প্রতিই সড়ক ২ ছবির শ্যুটিং বাতিল করা হয়েছিল, কিছু কিছু অংশের জন্য আবার লোকেশন বদলেও ফেলা হয়। মহেশ ভাট পরিচালিত এই ছবির কিছুটা অংশ ইতিমধ্যেই শ্যুট করা হয়েছে কাশ্মীরে। তবে কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বাকি অংশের শ্যুটিং স্থগিত রাখার সিদ্ধান্তই নিয়েছিলেন মহেশ ভাট। বৃহস্পতিবার সন্ধের ভাষণ প্রধানমন্ত্র স্পষ্টভাষায় জানিয়ে দেন, নিরাপদেই শ্যুটিং করুন, কাশ্মীরে আসুন। সঙ্গে তিনি কাশ্মীরকে পর্যটনের দিক থেকেও অনেক বেশি উন্নত করে তুলবেন বলেও আশ্বাস দেন এই দিন। ফলে কাশ্মীরে নিরাপত্তা নিয়ে নিশ্চিন্তেই থাকতে বললেন তিনি।