সোমবার বিকালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে এই প্রথমবার নরেন্দ্র মোদী নন-অ্যালাইনড মুভমেন্ট বা 'নাম' রাষ্ট্রগোষ্ঠীর শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নিলেন। এই সম্মেলন হল অবশ্য ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে। এর আগে ২০১৬ ও ২০১৯ সালে প্রধানমন্ত্রী এই সম্মেলন এড়িয়ে গিয়েছিলেন। তাঁর বদলে অংশ নিয়েছিলেন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি। প্রথমবার অংশ নিয়েই প্রধানমন্ত্রী ডাক দিলেন 'ন্যায্যতা, সাম্যতা এবং মানবতার'। বক্তব্যের মধ্য দিয়ে করোনা-পরবর্তী পৃথিবীর অপূর্ব ছবি আঁকলেন তিনি।

এদিন তিনি এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বলেন, 'করোনাভাইরাস আমাদের বিদ্যমান আন্তর্জাতিক ব্যবস্থার সীমাবদ্ধতা দেখিয়েছে। কোভিড পরবর্তী বিশ্বে আমাদের ন্যায়, সাম্য এবং মানবতার ভিত্তিতে বিশ্বায়নের একটি নতুন কাঠামো প্রয়োজন। আমাদের এমন আন্তর্জাতিক সংস্থা গঠন দরকার যা আজকের বিশ্বের সঙ্গে মানানসই হবে'।

প্রসঙ্গত এর আগে জি-২০'র ভার্চুয়াল শীর্ষ সম্মেলনেও প্রধানমন্ত্রী একইভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ঢেলে সাজানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন। একইসঙ্গে ডাক দিয়েছিলেন, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত গবেষণা বা উন্নতি কোনও দেশের মানচিত্রে আবদ্ধ না রেখে তাকে বিশ্বজনীন করে তোলার। অর্থাৎ, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নতুন যা কিছু আবিষ্কার হবে তার ফল গোটা বিশ্বের দেশগুলি সমানভাবে ভোগ করবে। এইবার নাম সম্মেলনেও তিনি ন্যায্যতা, সাম্যতা এবং মানবতার বিশ্বায়নের কথাই বললেন।

করোনভাইরাস সংকটের মধ্যেই এই ভার্চুয়াল শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল। এই সম্মেলনের মূল আলোচনাটাই ছিল কোভিড-১৯'এর বিরুদ্ধে মানবজাতির ঐক্য। আজারবাইজানের রাষ্ট্রপতি ইলহাম আলিয়েভ এই আন্দোলনের বর্তমান সভাপতি। ভারত থেকে এদিন প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও এই সম্মেলনে অংশ নেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।