সুকুমার রায় লিখেছিলেন 'গোঁফের আমি, গোঁফের তুমি, গোঁফ দিয়ে যায় চেনা'। আর গোঁফ কাটার ফলে প্রায় অচেনাই হয়ে গেলেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। পাকিস্তানি এফ-১৬ যুদ্ধবিমানকে কুপোকাত করার নায়ক সোমবার সকালে বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধানোয়ার সঙ্গে মিগ-২১ বিমান চালালেন। সেইসময়ই তাঁর পরিচিত গোঁফ দেখতে না পেরে যারপরনাই হতাশ হলেন নেটিজেনরা।   

এটিই ছিল এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়ার জীবনের শেষ উড়ান। তিনিই ছিলেন মিগ-২১'এর সামনের ককপিটে, আর পিছনের ককপিটে ছিলেন অভিনন্দন। এর আগে বালাকোটে ভারতের বিমান হামলার পর পাল্টা পাক এফ-১৬ বাহিনী ভারতে হামলা চালাতে এলে জাতীয় নায়ক হয়ে উঠেছিলেন অভিনন্দন। মিগ-২১ বাইসন নিয়ে উড়ে গিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়ে একটি এফ-১৬ বিমান মাটিতে নামিয়েছিলেন তিনি।

সেই সময়ই তাঁর 'গান-স্লিঙ্গার' শৈলির গোঁফের ছাঁট দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। ভারতীয় যুবদের মধ্যে তাঁর মতো করে গোঁফ কাটার হিরিক পরে গিয়েছিল। দেশের বিভিন্ন জায়গায় চুল-দাড়ি ছাঁটার দোকানে বিনামূল্যে অভিনন্দনের মতো করে গোঁফ কেটে দেওয়ার অফার দেওয়া হয়েছিল। এমনকি কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরি অভিনন্দনকে সম্মান জানাতে তাঁর গোঁফকে 'জাতীয় গোঁফ' হিসেবে ঘোষণা করার দাবিও জানিয়েছিলেন। সেই আইকনিক গোঁফই এদিন দেখা যায়নি।

এতে টুইটারে অনেকেই হতাশা প্রকাশ করেছেন। কেউ বলেছেন, 'উনি গোঁফ কেটে ফেলেছেন দেখে দুঃখ পেলাম'। কেউ শুধু বলেছেন, 'হায় সেই গোঁফটা'। কেউ দুঃখের ইমোজি ব্যবহার করে লিখেছেন, 'অভিনন্দন, কোথায় গেল সেই আইকনিক গোঁফ'? কারোর বক্তব্য সেই হ্যান্ডেল বার গোঁফ নেই, কিন্তু স্টাইল আর হাসি একই রয়েছে।'