মুখ ভর্তি পাকা দাড়ি, মাথায় টুপি। হাসিমুখের 'বৃদ্ধ'-কে দেখে বোঝার উপায় নেই মাত্র পাঁচ মাসে কারও চেহারায় এতটা বদল আসতে পারে। হ্যাঁ, ইনি জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা। জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ ধারার অবলুপ্তি ঘটানোর পর গত অগাস্ট মাসে তাঁকে বন্দি করা হয়েছিল। তার পর এই প্রথম ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতার কোনও ছবি প্রকাশ্যে এলো। 'বৃদ্ধ' ওমরের এই ছবি ঝড়ের গতিতে ইন্টারনেট- এ ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। 

বন্দিদশায় থাকাকালীন বহির্বিশ্বের সঙ্গে কোনও যোগাযোগই নেই ওমরের। প্রথম প্রথম তিনি বা তাঁর রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ মেহবুবা মুফতি বন্দি দশায় কী করছেন, সেই সংক্রান্ত কিছু খবর সংবাদমাধ্যমে উঠে আসছিল। কিন্তু গত কয়েকমাসে সেসবও প্রাসঙ্গিকতা হারিয়েছে। 

তার পর আচমকাই ওমরের এই ছবি যেন নাড়িয়ে দিয়েছে দেশের রাজনৈতিক মহলকে। এমন কী, ওমরের রাজনৈতিক মতাদর্শের বিরোধী যাঁরা, তাঁরাও বন্দি দশায় ওমরের এই চেহারা দেখে উষ্মা প্রকাশ করেছেন। অনেকেই বলেছেন, এক ধাক্কায় ওমরের বয়স যেন তিরিশ বছর বেড়ে গিয়েছে। 

আবার অনেকেই এই লুকস নিয়ে ট্রোল করতেও ছাড়েননি। ওমরের হাসি মুখ দেখে মজা করে অনেকেই বলেছেন, কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করায় আসলে খুশি হয়েছেন তিনি।

 

 

আবার ওমরের নতুন এই চেহারার নেপথ্যে আসল কারিগরকে খুঁজে নিতে দেরি করেনি সোশ্যাল মিডিয়া। মজা করে অনেকেই বলছেন, জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর এমন চেহারার পিছনে আসল 'শিল্পী' হলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।