বাজেট পেশ করলেন দেশের প্রথম মহিলা অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এবার বাজেটের প্ৰধান চমক হয়ে দাঁড়াল গ্রামীণ মানুষের সার্বিক উন্নয়ন। অন্য দিকে বাজেট পাঠ চলাকালেই নির্মলা সীতারামণ জানালেন সরকার স্বামী বিবেকানন্দর আদর্শ অনুযায়ী মহিলাদের ক্ষমতায় করতে চায়।
 
কিন্তু কী ভাবে হবে নারীর ক্ষমতায়ন, দেখা যাক বাজেটের ইঙ্গিত- 
 

  • এদিন নির্মলা বলেন, নারীকেই নারায়ণী হিসেবে দেখতে চাই আমরা।
  • তাঁর মতে, বিবেকানন্দের আদর্শে মহিলাদের জন্য কাজ করবে সরকার।
  • অর্থমন্ত্রীর দাবি, গ্রামীণ অর্থব্যবস্থায় মহিলাদের অংশহগ্রহণ অবিশ্বাস্য।
  • মোদী সরকার একটা কমিটি করতে চাইছে মহিলাদের উন্নয়নকে সুনিশ্চিত করতে।

নির্মলা সীতারামন বলেন, আমরা যে ধরণের পরিবর্তন চাইছি সেখানে নারীদের নেতৃত্ব কাজে লাগবে। এবার মহিলাদের ভোটে অংশগ্রহণ আমাদের পরিকল্পনা। আমাদের ৭৮ জন সাংসদ রয়েছেন। আমরা তাই মহিলাদের নেতৃত্বদানের দেখতে চাইছি। এরপরেই পরিকল্পনা ব্যক্ত করেন তিনি। কেন্দ্র এবার মহিলা পরিচালিত সেল্ফ হেল্প গ্রুপ প্রতিটি গ্রামে ছড়িয়ে দিতে চাইছে। নির্মলা বলেন,প্রতিটি সেল্ফ হেল্প গ্রুপের একজন করে প্রতিনিধি এককালীন এক লক্ষ টাকা লোন নিতে পারবেন। তবে প্রশ্ন একটা থেকেই যাচ্ছে। মহিলাদের নেতৃত্বদানের স্থানে দেখতে চান বলেনও, ঠিক কী ভাবে এই ক্ষমতায়ণ সম্ভপর হবে সে বিষয়ে কোনও ইঙ্গিতই দিতে পারলেন না কেন সীতারামণ। শুধু সেল্ফ হেল্প গ্রুপে ক্ষমতাবৃদ্ধি ছাড়া আর কিছুই কি নেই কেন্দ্রের ঝুরিতে মেয়েদের জন্যে?  প্রশ্ন উঠছে, এই বাজেটে আবেগ ছাড়া আর কিছুই বরাদ্দ নেই সারাদেশের লক্ষ লক্ষ মহিলাদের জন্যে, সময় কথা বলবে।