৫৯টি চিনা অ্যাপ ব্যান করার এর এবার বিদ্যুৎ ক্ষেত্রেও চিনা আনা সামগ্রী বাতিলের দিকেই এগিয়ে চলেছে মোদী সরাকর। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরকে সিং জানিয়েছেন, চিন বা পাকিস্তান থেকে বিদ্যুৎ সরঞ্জাম আনতে গেলে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলিকে কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি নিতে হবে। নাহলে ভারতে গ্রিড বপর্যয়ের মত আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরকে সিং আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, বিদ্যুৎ সরঞ্জামে লুকোনো ট্রোজান হর্স ভারতের বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে বড়সড় বিপদ ডেকে আনতে পারে। সেই বিপর্যয় এড়াতেই  প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। মন্ত্রীর কথায় চিনা বা পাকিস্তান থেকে আমদানী করা বিদ্যুৎ  সরঞ্জাম বা যন্ত্রাংশ ভারত সরকারের নির্ধারিত ল্যাবগুলিতে পরীক্ষা করাতে হবে। 

করোনা সারিয়ে দেওয়ার 'নিদান দিয়ে' বালিকাকে গণধর্ষণ, ২ নাবালক অভিযুক্ত গ্রেফতার ..

'কেউ তো মিথ্যা বলছে', প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফরের মাধেই ভিডিও পোস্ট করে নিশানা রাহুলের ..

মন্ত্রীর কথায় ওই পরীক্ষা থেকে যে কোনও ধরনের এম্বেড করা বা ট্র্যাক করা যায় এমন যন্ত্রাংশ চিহ্নিত করতে পারা যাবে। পাশাপাশি সাইবার হানার আশঙ্কা থাকলেও তা দূর করতে পারবে সক্ষম হবে প্রযুক্তি। মন্ত্রীর কথায় আমদানি করা যন্ত্রাংশের মান বজায় রাখতেও সক্ষম হবে কেন্দ্র। 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরকে সিং আরও জানিযেছেন যে দেশ আমাদের ভূখণ্ডে প্রবেশ করে আমাদের সেনাদের হত্যা করছে সেই দেশের কর্মসংস্থান কেন করবে ভারত। তিনি জানিয়েছেন, গত অর্থবর্ষে ৭১ হাজার কোটি টাকার বিদ্যুৎ সামগ্রী আমদানি করা হয়েছিল। তারমধ্যে চিন থেকেই এসেছে ২১ হাজার কোটি টাকা। চিনের নাম না করে আমদানি নির্ভরতা কমানোর পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। 
বুধবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গডকরি জানিয়ে দিয়েছেন জাতীয় সড়ক প্রকল্পে কোনও চিনা সংস্থা আর অংশ নিতে পারবে না।