প্রথমে দু' জন এমন ঝগড়া করছিলেন যে তাঁদের আলাদা জায়গায় রাখতে হয়েছিল। তার পর থেকে অবশ্য জম্মু কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বন্দি জীবন কাটানোর জন্য  নিজেদের মতো করে পথ বের করে নিয়েছেন। একজনের সময় কাটছে  ভিডিও গেম খেলে আর জিমে, অন্যজন তখন প্রার্থনা আর বইয়ের মধ্যেই নিজেকে ডুবিয়ে রেখেছেন। 

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করার পরেই দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা এবং মেহবুবা মুফতিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। বন্দি  অবস্থায় দুই নেতার মধ্যেই অবশ্য প্রবল ঝগড়া শুরু হয়। তখন তাঁদের দু' জনকে পৃথক রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রথমে দু' জনকেই হরি নিবাস প্যালেসে রাখা হয়েছিল। পরে সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে তাঁদের মেহবুবা মুফতি এবং ওমর আবদুল্লাকে দু'টি আলাদা অতিথিশালায় রাখা হয়। 

গ্রেফতারির পরে বারো দিন কেটে গিয়েছে। বেশ কয়েকটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বন্দি অবস্থায় হাল্কা মেজাজেই রয়েছেন ওমর। স্থানীয় প্রশাসন সূত্রের খবর, গ্রেফতারির পরেই ভিডিও গেমের আবদারের কথা জানিয়েছিলেন ওমর আবদুল্লা। কিন্তু প্রাথমিকভাবে তাঁকে  তা দেওয়া নিয়ে দ্বিধায় ছিল প্রশাসন। কারণ কাশ্মীরে ইন্টারনেট পরিষেবাই বন্ধ ছিল। টেক স্যাভি ওমর তখন জানিয়ে দেন, তিনি ভিডিও গেমের পুরনো ভার্সনগুলি পেলেই খুশি। সেগুলি খেলতে নেট সংযোগের প্রয়োজন হয়না। তার পর থেকেই ভিডিও গেমে মজে রয়েছেন ওমর আবদুল্লা। 

আরও পড়ুন- বন্দি অবস্থাতেই তুমুল ঝগড়া, আলাদা রাখতে হল ওমর- মেহবুবাকে

এর পাশাপাশি প্রচুর হলিউড সিনেমাও দেখছেন ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা। স্বাস্থ্য সচেতন ওমর অনেকটা সময় কাটাচ্ছেন জিমেও। সময় পেলে অতিথিশালার বাগানে কিছুটা পায়চারিও করে নিচ্ছেন। 

ওমর যখন জিম, ভিডিও গেম, সিনেমায় মজে রয়েছেন, তখন একটু অন্যরকম ভাবে সময় কাটাচ্ছেন মেহবুবা মুফতি। বন্দিদশায় তাঁর প্রিয় বন্ধু হয়ে উঠেছে বিভিন্ন রকমের বই। ঘণ্টার পর ঘণ্টা একের পর এক বই পড়ে চলেছেন পিডিপি নেত্রী। এর পাশাপাশি সময়, সুযোগ মতো প্রার্থনাও সেরে নিচ্ছেন তিনি।