গতবছর ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসার দিনেই রক্তে ভিজেছিল পুলওয়ামা। সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় প্রাণ হারান কমপক্ষে ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান। যাদের মধ্যে ছিলেন এই রাজ্যের দুই শহিদও।  দেখতে দেখতে একবছর হয়ে গেল সেই হামলার। এক বছর আগের সেই ভয়ঙ্কর স্মৃতি এখনও টাটকা দেশবাসীর মনে। শহিদদের স্মরণে শুক্রবার জম্মু-কাশ্মীরের লেথপোরা ক্যাম্পে উদ্বোধন করা হল স্মৃতিসৌধের। পুলওয়ামায় শহিদ জওয়ানদের নামের পাশাপাশি তাঁদের ছবিও থাকছে ওই সৌধে। 

দেশের ইতিহাসে অন্যতম এই কালো দিনের এক বছর পূর্ণ হল শুক্রবার। শহিদদের স্মৃতিতে এদিন সকালেই শ্রদ্ধা জানালেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

শুক্রবার সকালে শহিদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মোদী ট্যুইট করেন। লেখেন, "গত বছর পুলওয়ামায় প্রাণ হারানো সাহসী শহিদদের শ্রদ্ধা জানাই। তাঁরা দেশের সেবা ও সুরক্ষায় জীবন বলিদান দিয়েছেন। ভারত তাঁদের অবদান ভুলবে না।"

 

শ্রদ্ধা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ট্যুইট করেন, " পুলওয়ামা হামলায় শহিদদের শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। এই সাহসী জওয়ান ও তাঁদের পরিবারের প্রতি দেশ চিরকৃতজ্ঞ থাকবে।"

 

পুলওয়ামা কাণ্ডের সময় দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন রাজনাথ সিং। হামলার খবর পেয়ে কাশ্মীর গিয়েছিলেন তিনি। এদিন সকালে শহিদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে ট্যুইট করেন বর্তমানে দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব সামলানো রাজনাথও। লেখেন, " ২০১৯ সালে পুলওয়ামায় যাঁরা শহিদ হয়েছিলেন, তাঁদের স্মরণ করছি। ভারত তাঁদের ত্যাগ ভুলবে না। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে দাঁড়িয়েছে গোটা দেশ। আমাদের এই লড়াই চলবে।"

 

 সিআরপিএফ-এর পক্ষ থেকেও  এদিন শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়ে ট্যুইট করা হয়। ট্যুইটবার্তায় বলা হয়, " আমরা ভুলিনি। আমরা ক্ষমা করিনি। দেশের জন্য আমাদের ভাইরা পুলওয়ামায় নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন, তাঁদের স্যালুট জানাচ্ছি। বীর শহিদ জওয়ানদের পরিবারের পাশে আছি আমরা। "