পেঁয়াজ কাটতে গেলে অনেক সবই চোখ দিয়ে জল পড়ে কিন্তু মাস দুই আগে পেঁয়াজ কিনতে গিয়েই কেঁদে ফেলার অবস্থা হয়েছিল ক্রেতাদের। গত মাসটা কিছুটা ভাল গেলেও আবার সেই দিন এসে উপস্থিত। চন্দ্রযানের গতিতে বাড়ল পেঁয়াজের দাম। ভারতের কোনও কোনও রাজ্যে খুচরো বাজারে পেঁয়াজের দজাম দাঁড়িয়েছে কেজি প্রতি ৯০ টাকা। এখানেই শেষ নয়, সামনের কয়েক দিনে এই দাম আরও বাড়বে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।  

গত তিন মাসে পেঁয়াজের দাম চারগুণ বেড়েছে

গত অগাস্ট মাসে প্রথম দাম বেড়েছিল পেঁয়াজের। সেপ্টেম্বরেও পেঁয়াজের দাম উর্ধ্বগামী ছিল। প্রতি কেজিতে ৮০ টাকা ছুঁয়েছিল পেঁয়াজের দাম। তারপর অক্টোবর মাসে স্বাভাবিক হয়ে এসেছিল অবস্থাটা। এইবারের মূল্যূবৃ্দ্ধি মিলিয়ে গত তিন মাসে মোট চারগুণ বেড়েছে পেঁয়াজের দাম।

কত করে যাচ্ছে পেঁয়াজ?

ভারতের সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজ উৎপন্ন হয় মহারাষ্ট্রে। এই রাজ্যের লাসালগাঁও পাইকারি বাজারে মঙ্গলবার পেঁয়াজের গড় মূল্য ছিল কেজি প্রতি ৫৫.৫০ টাকা। সারাদেশে পেঁয়াজের দাম এইমুহূর্তে কেজি প্রতি ৬০ থেকে ৯০ টাকার মধ্যে রয়েছে। তবে খুব তাড়াতাড়িই পেয়াজের দাম সেঞ্চুরি করে ফেলবে অর্থাৎ কেজি প্রতি ১০০ টাকায় পৌঁছে যাবে।

কেন আবার দাম বাড়ল পেঁয়াজের?

মূল কারণ চাহিদার সমান জোগানের অভাব। ভারতের মূল পেঁয়াজ উৎপাদনকারী রাজ্য মহারাষ্ট্রের অসময়ের বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ফসলের। গত দু'সপ্তাহ ধরে বৃষ্টিপাতে পেঁয়াজ চাষের মূল এলাকাগুলি অর্থাৎ নাসিক, আহমেদনগর, পুনেতে প্রচুর পেঁয়াজ পচে নষ্ট হয়েছে। নভেম্বরের এই বৃষ্টিপাতে যে ক্ষতি হয়েছে তাতেই পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা সামনের কয়েকদিনে আরও দাম বাড়ার আশঙ্কা করছেন।

বস্তুত, এইবছর চাহিদা অনুযায়ী পেঁয়াজের জোগান আদৌ দেওয়া যাবে কিনা তাই নিয়েই সন্দেহ দেখা দিয়েছে। নতুন পেঁয়াজ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় কৃষকরা বেশিরভাগই এখন পুরাতন স্টক বিক্রি করছেন। আর গত বছরও পেঁয়াজের ফলন ভালো না হওয়ায় পুরোনো পেঁয়াজের দামটাও বেশ বেশির দিকেই যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।