একদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দপ্তর থেকেই রাজ্যসভায় এক লিখিত বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছিল চন্দ্রযান ২ প্রকল্পের পিছনে মোট ৯৬০ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় বিদেশ দপ্তর থেকে জানানো হল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গত তিন বছরের বিজেশ ভ্রমণে বিমান ভাড়া বাবদ কত খরচ হয়েছে। দেখা যাচ্ছে তা চন্দ্রযান ২ প্রকল্পের এক চতুর্থাংশেরও বেশি।

এদিন এক লিখিত বিবৃতিতে বিদেশ দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী ভি মুরলীধরণ জানান, গত তিন বছরে বিদেশ ভ্রমণে প্রধানমন্ত্রী যে চার্টাড প্লেন ব্যবহার করেছেন, তার বাড়া বাবদ মোট ২৫৫ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, ২০১৬-১৭ সালে চার্টার্ড ফ্লাইটের ভাড়া বাবদ খরচ হয়েছিল ৭৬.২৭ কোটি টাকা, ২০১৭-১৮'তে ৯৯.৩২ কোটি টাকা, আর ২০১৮-১৯-এ  ৭৯.৯১ কোটি টাকা। ২০১৯-২০'র তথ্য এখনও মেলেনি।

বুধবার চন্দ্রযান-২ অভিযান সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছিলেন, চন্দ্রযান-২'এর অভিযান অংশে খরচ হয়েছে ৬০৩ কোটি টাকা। আর এক উৎক্ষেপনের পিছনে খরচ পড়েছে ৩৬৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ সব মিলিয়ে এই প্রকল্পের পিছনে খরচ হয়েছে ৯৭০ কোটি টাকা।