গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দ্রন বর্তমানকে আটক করেছিল পাক সেনা। তারপর ৪৮ ঘন্টা ধরে তার উপর চলে অত্যাচার। কিন্তু কোনওভাবেই তার মুখ থেকে কোনও তথ্য আদায় করতে পারেনি পাকিস্তান। পাক সেনার যে কমান্ডো সেই অত্যাচারে নেতৃত্ব দিয়েছিল, নিয়ন্ত্রণরেখায় সেই কমান্ডোই ভারতীয় সেনাবাহিনীর গুলিতে খতম হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।  

সেনা সূত্রে খবর পাকিস্তান সেনাবাহিনীর স্পেশাল সার্ভিস গ্রুপের ওই সদস্যের নাম আহমেদ খান। গত ১৭ অগাস্ট তার নেতৃত্বে পাক বাহিনী ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিল। সই সময়েই নাকিয়াল সেক্টরে ভারতীয় সেনার গুলিতে সে নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা। এক স্নাইপারে গুলিতে তার প্রাণ যায়। তার সঙ্গে সঙ্গে আরও ১২ জন পাক সেনা সদস্য ওই ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তাঁর বন্দিদশার কয়েকটি ছবি প্রকাশ করা হয়েছিল। সেই ছবিতে ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডারের পিছনেই ছিল আহমেদ খান।

বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইকের পর পাকিস্তান এফ-১৬ বিমান বাহিনীনিয়ে ভারতে হামলা চালানোর চেষ্টা করলে, ভারতের মিগ-২১ বাহিনী তাদের হটিয়ে দেয়। পাক যুদ্ধবিমানের পিছু করতে গিয়ে পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে পড়েছিলেন অভিনন্দন। তারপর পাক বাহিনী গুলি করে তার বিমান নামানোয় তিনি ধরা পড়েছিলেন।

দুদি পাকিস্তানের কব্জায় থাকার পর ভারতে ফিরেছিলেন এই বীর যুদ্ধ-নায়ক। তাঁর পাঁজরের একটি হাড় ভাঙা ছিল। পিঠে ছিল যন্ত্রণা। এছাড়া সারা সরিয়ে অসংখ্য জায়গা ছড়ে গিয়েছিল। স্বাধীনতা দিবসের দিন তাঁকে বীর চক্র পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।