এখনও হিন্দুত্ব থেকে সরে আসেননি। অযোধ্যায় গিয়ে ঘোষণা মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের। তিনি আরও বলেন, বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করতে পারেন। কিন্তু কখনই হিন্দুত্বের রাস্তা থেকে সরবেন না। হিন্দুত্ব আর বিজেপি এক নয়। অযোধ্যায় গেলেও অরতি দেখা থেকে বঞ্চিত হতে হতে হয়েছে বালা সাহেব ঠাকরের ছেলে উদ্ধব ঠাকরে। কারণ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে বন্ধ রয়েছে সেখানের আরতি। 

অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মানের জন্য মহারাষ্ট্রা সরকার এককোটি টাকা অর্থ সাহায্য করবে বলেও তিনি ঘোষণা করেন। মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর এটাই তাঁর প্রথম অযোধ্যা সফর। শনিবার তিনি আসেন মন্দির শহর অযোধ্যাতে। এর আগে ২০১৮ সালের নভেম্বরে তিনি অযোধ্যা এসেছিলেন বলেও জানিয়েছেন। তবে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে এটাই তাঁর প্রথম অযোধ্যা সফর। বিজেপির সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করেছিল শিবসেনা। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর দাবি নিয়ে দুই পক্ষের বিবাদের সূত্রপাত। দীর্ঘ টালবাহানার পর প্রায় এক মাস পরে মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন হয়। সেই সময়ই বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে কংগ্রেস ও এনসিপির সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে সরকার গঠন করে শিবসেনা। সেনার এই পদক্ষেপে রীতিমত ক্ষুব্ধ বিজেপি। কিন্তু শনিবার মন্দির শহরে এসে আরও একবার নিজের ও দলের অবস্থান স্পষ্ট করেন উদ্ধব ঠাকরে।

আরও পড়ুনঃ করোনা মোকাবিলায় করমর্দন নয়, নমস্কার করুন, পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

আরও পড়ুনঃ ইয়েস ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের উদ্বেগ থেকে স্টেট ব্যাঙ্কের ঘোষণা, দেখুন ১০টি তথ্য

এদিন উদ্ধব ঠাকরে আরও বলেন আগেই তিনি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নাথের সঙ্গে কথা বলেছেন। অযোধ্যায় রাম ভক্তদের কিছু এলাকা নির্দিষ্ট করে রাখার প্রস্তাবও দিয়েছেন তিনি। কারণ মন্দির নির্মাণের সময় অনেক ভক্তই নির্মান কাজে হাত লাগাতে চাইবে। তাঁদের থাকার নূন্যতম ব্যবস্থা করার আর্জি জানিয়েছেন বলে বলেন উদ্ধব। ২৪ নভেম্বর, ২০১৯ সুপ্রিম কোর্ট রাম মন্দির নিয়ে ঐতিহাসিক রায় দেয়। তারপর থেকেই মন্দির তৈরির প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে অযোধ্যায়।