গুজরাতের স্ট্যাচু অব ইউনিটির সঙ্গে সহজে যোগাযোগ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রবিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কেভাডিয়াগামী আটটি ট্রেনের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি ও রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। আটটি ট্রেনের উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী বলেন এটি এক ভারত শ্রদ্ধার ভারতের একটি সুন্দর ছবি। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন স্ট্যাচু অব লিবার্টির থেকে স্ট্যাচু অব ইউনিটির কাছে এখন বেশি পরিমাণে দর্শক আসছেন। কেভাডিয়া এখন আর কোনও ছোট জায়গা নয়।খুব তাড়াতাড়ি এটি বিশ্ব পর্যটন মানচিত্রে জায়গা করে নেবে বলেও আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। আগামী দিনে কোভাডিয়াতে দৈনিক ১ লক্ষ পর্যটক আসবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ট্রেন উদ্বোধন করে তিনি নিজের অতীতের কথাও দেশের মানুষের সঙ্গে ভাগ করে নেন। তিনি বলেন, জীবনের একটা সময় তিনি নর্মদাতে কাটিয়েছিলেন। সেই সময়ে সেখানে ন্যারো গেজ রেল লাইন ছিল। এখন সেখানে তৈরি হয়েছে ব্রডগেজ লাইন। তাঁর ট্রেন যাত্রার অভিজ্ঞতা খুব সুন্দর ছিল বলেও জানিয়েছিলেন মোদী। পাশাপাশি তিনি বলেন গত কয়ের বছর ভারতীয় রেলওয়ায়ে আধুনিকিকরণের প্রকল্পগুলি গুরুত্ব সহকারে রূপায়িত করা হয়েছে। 


এদিন প্রধানমন্ত্রী যে আটটি ট্রেনের উদ্বোধন করেন, সেগুলি দাদর, আমেদাবাদ, হযরত নিজামউদ্দিন, চেন্নাই, প্রতাপ নগরকে কেভাডিয়ার সঙ্গে যুক্ত করবে।এগুলি ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ডভোই চান্দোদ ব্রডগেজ লাইন, চান্দোদ কোভাডিয়া নতুম ব্রডগেডরেললাইন, কেভাডিয়া নতুন রেল স্টেশনের ভবনসহ বেশ কয়েকটি  প্রকল্প উদ্বোধন করেন। কেভাডিয়া স্টেশন হল ভারতের প্রথম গ্রিন বিল্ডিং  রেল স্টেশন।