প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সোমবার ওয়ান নেশন ওয়ান মবিলিটি কার্ড পরিষেবার সূচনা করেন। দিল্লির প্রথম স্বয়ংক্রিয় মেট্রোর উদ্বোধনের সময়ই  ন্যাশানাল কমন মবিলিটি কার্ডের (এনসিএসসি) সূচনা করেন করে প্রধানমন্ত্রী বলেন দেশের সর্বাত্নক উন্নয়নের লক্ষ্যে পরহিষেবাগুলিকে একীভূত প্রযুক্তিগত ইন্টারফেস ব্যবহারের সময় এসেগেছে। আর সেইদিকেই ধাপে ধাপে এগিয়ে যাওয়া হচ্ছে। 


দিল্লি মোট্রো রেল সূত্রে খবর ন্যূনতম ১৮ মাস আগে পাওয়া রুপে ডেবিট কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন মেট্রো যাত্রীরা। দেশের যেকোনও প্রান্তের যাত্রীরা এয়ারপোর্ট এক্সচেঞ্জ লাইনে এই কার্ড ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। দিল্লি মেট্রোর সব বিভাগে ২০২২ সালের মধ্য়ে এই পরিষেবা শুরু হয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মেট্রো রেল কর্পোরেশনের ডিএমআরসি। আগেই একটি বিবৃতি জারি করে দিল্লি মেট্রো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল যাতাযাতের ক্ষেত্রে নতুন দিক তৈরি করবে এই কার্ড। দিল্লি-এনসিআর -এর যাত্রীরা এই কার্ডের মাধ্যমে সুষ্ঠুভাবে যাতায়াত করতে পারবেন। এদিন মোদী বলেনস দেশের উৎস ও কর্মক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। 


এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দিল্লি মেট্রোর ম্যাডেন্ডা লাইনে স্বয়ংক্রয় মেট্রো ট্রেন পরিষেবা উদ্বোধন করেন। দিল্লির জনকপুরী ওয়েস্ট থেকে বোটানিক্যাল গার্ডেন পর্যন্ত দীর্ঘ ৩৭ কিলোমিটার রাস্তায় মেট্রো ছুটবে কোনও চালক ছাড়াই। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর এই পরিষেবাকে দেশের মেট্রো মানচিত্রে একটি নতুন পদক্ষেপ হিসেবেই দেখা হচ্ছে।