প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও  কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী দুজনেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দেশের মানুষকে। দুজনেই দুজনের মত করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যখন ২০২১ সালে সুস্বাস্থ্য ও সমৃদ্ধির কথা বলেছেন তখন রাহুল গান্ধী দিল্লির উপকণ্ঠে চলা কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে খোঁচা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকারকে। 


সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, ২০২১ সালের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। চলতি বছর সুস্বাস্থ্য, আনন্দ আর সমৃদ্ধির কামনা করেছেন তিনি। পাশাপাশি আগামী বছর যাতে সবকিছু ঠিক থাকে তারজন্যও প্রার্থনা করেছেন তিনি। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ২০২০কে প্রথম থেকেই চ্যালেঞ্জের বলে বর্ণানা করেছিলেন। মহামারির সঙ্গে লড়াই করার জন্য একগুচ্ছ পদক্ষেপও গ্রহণ করেছিলেন। তাঁর নেত্বেই দেশ প্রথম সবথেকে বড় তালাবন্দি দেখে। মহামরির সঙ্গে লড়াই চালিয়ে গেলেও বর্তমানে দেশ ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে। 


অন্যদিকে কংগ্রেস সাংসব এদিনও স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েও কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করেছেন। রাহুল গান্ধী সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখা বার্তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি বলেছেন, নতুন বছর শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আমরা তাঁদের স্মরণ করি যাঁদের আমরা হারিয়েছি। পাশাপাশি তিনি তাঁদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন যাঁরা আমাদের তথা দেশের সুরক্ষার জন্য ত্যাগ স্বীকার করেছে। পাশাপাশি ন্যায্য অধীকারের জন্য লড়াই করা কৃষক ও মজদুরদের সঙ্গে রয়েছেন তাঁর পূর্ণ সমর্থন। রাহুল গান্ধী আরও একবার প্রমাণ করেছেন তিনি সবেতেই কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করবেন। তিনি এর আগেও একাধিকবার মোদী সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছেন। আন্দোলনকারী কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে আরও একবার তিনি বার্তা দিলেন তিনি তাঁর অবস্থান থেকে নতুন বছরেও সরে আসবেন না। 

অন্যদিকে এদিন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও সোশ্যাস মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, নতুন করে শুরু করতে হবে। স্বতন্ত্র ও সম্মিলিতভাবে এগিয়ে যেতে হবে। পাশাপাশি করোনাভাইরাসের কারণে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে তা ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করে এগিয়ে যেতে হবে।