ঘূর্ণিঝড় আমফানে বিধ্বস্ত রাজ্যের জন্য আপৎকালীন এক হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেলন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার মমতা মুখ্যমন্ত্রী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে আকাশপথে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনের পর বসিরহাটে গিয়ে এই প্যাকেজ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, মৃতদের পরিবারপিছু ২ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। এবং আহতদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থসাহায্য করা হবে।

 

 

আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে  , শুক্রবার সকালে রাজ্যে আসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়েই রাজ্যের ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত জেলাগুলির পরিস্থিতি আকাশপথে পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। এরপর বসিরহাটে প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে রাজ্যপাল ও মুখ্যমন্ত্রীকে সঙ্গে নিয়েই আমফানের জেরে জেলায় ক্ষয়ক্ষতির মূল্যায়ন করেন তিনি। 

 

 

সাংবাদিক সম্মেলনে মোদী বলেন, 'আমফানে  ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে রয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। বাংলাকে আপৎকালীন সাহায্য হিসেবে এক হাজার কোটি টাকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা সবাই চাই পশ্চিমবঙ্গ এগিয়ে যাক।'

 

 

প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, 'আমফানের কারণে ক্ষয়ক্ষতি ও সেখানকার পরিস্থিতির সবিস্তার সমীক্ষার জন্য কেন্দ্র একটি দল পাঠাবে। পুনর্বাসন ও পুনর্নির্মানের সব দাবি মেটানো হবে।' পাশাপাশি, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ খতিয়ে দেখতে একটি কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দলও রাজ্যে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যেক এই সংকটে কেন্দ্র পাশে আছে সেকথা মমতাকে পাশে বসিয়েই বলেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলার জন্য ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করে  এরপর  ওড়িশায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান প্রধানমন্ত্রী।