পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী কলকাতা, মুম্বই ও নয়ডায় দিল্লি থেকে আইসিএমআরের হাইটেক ল্যাবরেটরি উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ছাড়াও সামিল হয়েছিলেন তিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, উদ্ধব ঠাকরে ও যোগী আদিত্যনাথ। কেন্দ্রের দাবি আইসিএমআরের এই ল্যাবগুলোতে দিনে অন্তত ১০ হাজার করে করোনা টেস্ট করা যাবে। শুধু করোনাই নয়, এইচআইভি, ডেঙ্গির মতো সংক্রামক রোগেরও পরীক্ষা করা যাবে এই অত্যাধুনিক ল্যাবরেটরিতে।

 

 

এরপরই জাতির উদ্দেশে ভাষণে মোদী বলেন, 'ভারত আজ যা করে দেখাচ্ছে, গোটা বিশ্ব তাজ্জব হয়ে গিয়েছে।  তবে, রাজ্যগুলিকে কৃতিত্ব দেওয়ার বদলে দেশে করোনায় মৃত্যুহার কম থাকার জন্যে নিজের সরকারকেই বাহবা দিয়েছেন মোদী। তাঁর কথায়, 'প্রথম থেকে সঠিক ব্যবস্থা নিয়েছে কেন্দ্র। তাই দেশে মৃত্যুহার এত কম, সুস্থতার হার এত বেশি।'

ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোদী আরও বলেন , ‘করোনার বিরুদ্ধে লড়ছে কোটি কোটি দেশবাসী। টেস্ট ল্যাব চালুর ফলে আরও শক্তিশালী হবে সেই লড়াই। মুম্বই, কলকাতা, নয়ডা অর্থনীতির অন্যতম ভিত্তি।’

আরও পড়ুন: বায়ুসেনার অন্তর্ভূক্ত হওয়ার ৭ দিনের মধ্যেই লাদাখে, অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমানকে নিয়ে বাড়ছে জল্পনা

প্রধানমন্ত্রী জানান দেশে প্রতিদিন ১০ লক্ষ করোনা টেস্ট করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে  তাঁর সরকার।  পাশাপাশি মোদী বলেন, 'দেশে ১৩০০ ল্যাবে করোনা টেস্ট হচ্ছে। আগে যেখানে দেশে একটাও পিপিই তৈরি হত না, সেখানে বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় পিপিই কিট তৈরির দেশ হয়ে উঠেছে ভারত। প্রতিদিন দৈনিক আড়াই লক্ষ এন৯৫ মাস্ক তৈরি হচ্ছে দেশে।' মোদীর দাবি, 'দুনিয়ার সব ধারনা আমরা ভ্রান্ত প্রমাণ করেছি। আমাদের কোটি কোটি মানুষের লড়াই দেখে দুনিয়া অবাক হয়ে গিয়েছে।' 

আরও পড়ুন: ২০২৪ সালের মধ্যে আমেরিকাকে টপকে বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হবে চিন, জানেন ভারত থাকবে কত নম্বরে

এদিকে দেশে করোনা প্রতিদিন রেকর্ড হারে সংক্রমণ ছড়ালেও এই পরিস্থিতিতে আগামী ১ আগস্ট থেকে দেশজুড়ে আনলক-৩ শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্র। সূত্রের খবর, শেষ মুহূর্তে পরিকল্পনায় বড়সড় পরিবর্তন না হলে পরবর্তী আনলক পর্যায়ে খুলে যেতে চলেছে সিনেমা হল।