গোটা দেশে লোকসভা এবং বিধানসভার নির্বাচন একসঙ্গে করানোর জন্য এবার সওয়াল করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। সপ্তদশ লোকসভার নবনির্বাচিত সাংসদদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখার সময়ই এ দিন এই বার্তা দেন রাষ্ট্রপতি। তাঁর কথায়, সময়ের দাবি মেনেই এক দেশ, এক নির্বাচন ব্যবস্থা চালু হওয়া উচিত। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বহুদিন ধরেই এক দেশ, এক নির্বাচনের পক্ষে সওয়াল করে এসেছেন। মঙ্গলবার সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে এ বিষয়ে আলোচনা করতে বৈঠকও ডাকেন তিনি। যদিও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ বেশ কয়েকজন মুখ্যমন্ত্রী সেই বৈঠকে গরহাজির ছিলেন। এবার রাষ্ট্রপতির মুখ দিয়ে এক দেশ, এক নির্বাচনের পক্ষে সওয়াল করিয়ে নিজের অবস্থান আরও শক্ত করে নিল কেন্দ্রীয় সরকার। 

এ দিন নিজের বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি বলেন, 'সমান্তরাল নির্বাচন ব্যবস্থা চালু হলে উন্নয়নে গতি আসবে, যা আদতে দেশবাসীর উপকারে লাগবে। এই ব্যবস্থা চালু হলে সমস্ত রাজনৈতিক দলেই সাধারণ মানুষের উন্নয়নের জন্য আরও বেশি সময় এবং শক্তি ব্যয় করতে পারবে।' প্রত্যেক সাংসদকেই উন্নয়নের স্বার্থে এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি নিয়ে ভেবে দেখার অনুরোধ করেন রাষ্ট্রপতি। 

এর পাশাপাশি গত পাঁচ বছরে সন্ত্রাস এবং জঙ্গি দমনে কেন্দ্রীয় সরকার যে পদক্ষেপ করেছে, তারও ভূয়সী প্রশংসা করেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ। বিশেষত মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি হিসেবে ঘোষণা, বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইকের মতো ঘটনাকেও সরকারের বড় সাফল্য বলে উল্লেখ করেন তিনি। দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার স্বার্থে এবং অনুপ্রবেশ আটকাতেই কেন্দ্রীয় সরকার এনআরসি চালু করেছে বলেই এ দিন ভাষণে উল্লেখ করেন রামনাথ কোবিন্দ। তবে যেভাবে দেশের বেশ কিছু জায়গায় জল সংকট বাড়ছে, তা নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য জসল সংরক্ষণের অনুরোধ করেছেন তিনি।