আসিয়ান সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের থাইল্যান্ড সফরে গিয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  ভারতীয় স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে আসিয়ান সম্মেলন শুরু হয়। রবিবারের মতো এই সম্মেলন ১২টা ১৫ মিনিটে শেষ হয়। এর পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেনারেল প্রায়ুত চান ও চানার সঙ্গে বৈঠক করেন। এই দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাণিজ্য নিয়ে কথা হয় বলে জানা গিয়েছে। থাইল্যান্ডে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ভারতে বিনিয়োগের জন্য এখন সব থেকে ভালো সময়।  


থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি জোকো উইডোডোর সঙ্গে বৈঠক করেন। মায়ানমারের নেত্রী আন সান সুকিংর সঙ্গে ভারতীয় সময় ৪.৪০ নাগাদ বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ব্যাংককে আসিয়ান সম্মেলনের  পাশাপাশি আরও রাষ্ট্রনেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ব্যাংককে আসিয়ান সম্মলনের পাশাপাশি রিজিওনাল কমপ্রিহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ বা আরসিইপি  সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন মোদী। 


আরসিইপি সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেছেন,  আরসিইপির অন্তর্ভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়াতে হবে।  এই সম্মেলনে বাণিজ্যিক পণ্য, পরিষেবা ও বিনিয়োগ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। বাণিজ্যিক দিক থেকে ভারতের প্রয়োজনের কথা এখানে আমি তুলে ধরব। আরসিইপিয়ের বর্ষিক বৈঠকে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের পাশাপাশি নিরাপত্তা ও দূষণের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে বলে জানা গিয়েছে। 

শনিবার থাইল্যান্ডের ভারতীয়রা মোদীকে স্বাগত জানাতে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সেখানে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার প্রসঙ্গে বলেন, বর্তমানে ভারত সরকার সন্ত্রাসের বীজ বপনের জায়গা উৎখাত করতে সমর্থ হয়েছে।