অমিত শাহ আগেই বলেছিলেন। এবার নরেন্দ্র মোদীও স্পষ্ট করে দিলেন যে নাগরিকত্ব আইন বা ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের মতো সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার কথা ভাবছে না সরকার। ফলে দিল্লি নির্বাচনে বিজেপি-র ভরাডুবির পর বিরোধীরা উৎসাহিত হলেও তাদের চাপে মাথা নত করতে রাজি নন মোদী- শাহরা।

এ দিন নিজের সাংসদ এলাকা বারাণসীতে একটি জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, '৩৭০ ধারা প্রত্যাহার হোক অথবা নাগরিকত্ব আইন প্রণয়ন, এই সিদ্ধান্তগুলির জন্য বছরের পর বছর অপেক্ষা করেছেন দেশবাসী।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'দেশের স্বার্থে এই সিদ্ধান্তগুলি নেওয়া প্রয়োজন। গোটা দুনিয়ার চাপ থাকা সত্ত্বেও এই সিদ্ধান্তে আমরা অটল থেকেছি, অটল থাকব।'

দেশজুড়ে এখনও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ চলছে। শাহিনবাগের আন্দোলনকারীরা এখনও নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ দেখিয়ে চলেছেন। দিল্লিতেও দলের ভরাডুবি হয়েছে। তার পরেও এ দিন প্রধানমন্ত্রী এই বক্তব্যে স্পষ্ট, নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে কোনও অবস্থাতেই পিছু হটবেন না তাঁরা। 

এ দিন বারাণসীতে গিয়ে রাম মন্দির প্রসঙ্গও উত্থাপন করেন মোদী। তিনি বলেন, 'রাম মন্দির তৈরি করা করার জন্য একটি ট্রাস্ট তৈরি করা হয়েছে। এই ট্রাস্ট আরও দ্রুততার সঙ্গে কাজ এগিয়ে নিয়ে যাবে।'  এ দিন বারাণসীতে ৫০টি প্রকল্পের উগদ্বোন এবং শিলন্যাস করেন। যার মোট মূল্য ১২৫৪ কোটি টাকা।