বিয়ের দিনের ছবি সকলের জীবনেই একটি স্মরণীয় দিন। সেই দিনের সব মুহূর্ত যে-কোনও মেয়ের কাছেই চিরস্মরণীয় হয়ে থাকে সারা জীবনের জন্য। এর ব্যতিক্রম নন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢড়াও। ২২ বছর আগে তাঁর বিয়ের দিন সকালের একটি ছবি তিনি টুইট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর তারপর থেকেই সেই টুইট নিয়ে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। 

মুখে লাজুক হাসি, পরনে বেনাকসি পরে প্রিয়ঙ্কা নিজের বিয়ের ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, 'আমার বিয়ের দিন সকালের পুজো (২২ বছর আগে)'। তারপর হ্যাশট্যাগ শাড়ি টুইটার। এরপর থেকেই তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া উপচে পড়ে কংগ্রেস কর্মী সমর্থক এবং সাধারণ মানুষের শুভেচ্ছাবার্তায়। তাঁকে বিবাহ বার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানাতে টুইট এবং রি-টুইটের বন্যা বয়ে যায়।

এর খানিকক্ষণ পরে ফের আর একটি টুইট করেন প্রিয়ঙ্কা। সেখানে তিনি বিবাহ বার্ষিকীর শুভেচ্ছার জানানোর জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান, সেইসঙ্গে লেখেনএটি নেহাতই একটি পুরনো ছবি। সোশ্যাল মিডিয়ায় 'হ্যাশট্যাগ শাড়ি টুইটার' ট্রেন্ডের জন্যই এ ই ছবি পোস্ট করেছেন তিনি।  তাঁর বিবাহ বার্ষিকী ফেব্রুয়ারি মাসে।  এখানেই শেষ নয়, এর পরের পোস্টে ছিল আরও চমক। স্বামী রবার্ট বঢড়াকে টুইট করে লেখেন, 'তা হলেও তুমি আমাকে ডিনারে নিয়ে যেতে পার।'

এই টুইটের উত্তরে রবার্ট বঢড়া লেখেন, 'খুব সুন্দর ছবি। আমার জন্য প্রতিদিনই তুমি একইরকম। ভালবাসা, আনন্দ এবং সহযোগীতা আমাদের একসঙ্গে থাকার রসদ। তোমাকে খুব ভালবাসি।' প্রসঙ্গত এরই মধ্যে গতকাল আদালতের গণ্ডি পেরোতে হয়েছে তাঁকে। তাঁর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপেরর মামলায় তাঁর আগাম জামিন খারিজ করতে দিল্লি হাইকোর্টে গিয়েছে ইডি। যদিও তিনি এর উত্তর দেওয়ার জন্য আদালতের থেকে দু’সপ্তাহের সময় চেয়ে নিয়েছেন তিনি। যাই হোক সমস্যার মধ্যেও দুজনের ভালবাসা-বাসি নিয়ে সরগরম ছিল নেট দুনিয়া।