ভেন্টিলেটরের গাণাবলী বোঝানোর সময়ই রাহুল গান্ধীকে সরাসরি  নিশানা করেন প্রস্তুতকারক সংস্থা এজিভা হেল্থকেয়ার প্রধান দিবাকর বৈশ্য। এজিভার  পিএম কেয়ারস ফান্ডের টাকার সস্তায় ভেন্টিলেটর তৈরি করছে। যা নিয়ে আগেই সমালোচনা করেছিলেন কংগ্রেস নেতা। রাহুল গান্ধী তাঁদের সংস্থার তৈরি ভেন্টিলেটরকে সাবস্ট্যান্ডার্ড বলে মন্তব্য করেছিলেন। পাশাপাশি বলেছেন দেশের জনগণকে বিপদের মধ্যে ফেলে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।  জনগণের টাকা নষ্ট করা হচ্ছে বলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ করেছিলেন রাহুল। 

মঙ্গলবার তাঁর সংস্থার তৈরি ভেন্টিলেটারের গুণাবলি পরিষ্কার করে বুঝিয়ে দেন সংস্থার প্রধান দিবাকর। সেই সময়ই তিনি বলেন রাহুল গান্ধী চিকিৎসক নন। তাই তাঁর পক্ষে ভেন্টিলেটারের গুণাবলী বোঝাও সম্ভব নয়। তিনি আরও বলেন বাজারে যে ধরনের ভেন্টিলেটর পাওয়া যায় সেধরনেরই ভেন্টিলেটর তৈরি করেছেন তাঁরা। 


এজিভার তৈরি ভেন্টিলেটর অনেকটাই সস্তা বলে দাবি করা হচ্ছে। সংস্থার প্রধানের কথায় তাঁদের তৈরি ভেন্টিলেটার ৫থেকে ১০ গুণ সস্তা। বাজারে যে ভেন্টিলেটার পাওয়া যায় তার দাম ১০-১৫ লক্ষ টাকা। কিন্তু এজিভার  তৈরি ভেন্টিলেটরের দাম পড়বে মাত্র দেড় লক্ষ টাকা। 
হাতে লিখে রাখা কয়েকটি সংখ্যা থেকেই খুনের কিনারা, তৎপরতার সঙ্গে ৫ দুষ্কৃতী হরিয়ানা পুলিশের জালেহাতে ল...

করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ নিয়ে ভিন্ন সুর স্বাস্থ্য মন্ত্রকের গাইডলাইনে , ৭ লক্ষ আক্রান্ত নিয়ে কোথায় দাঁড...

তিনি আরও বলেছেন দেশীয় পণ্যের প্রতি বিরুপ মনোভাব পোষণ করা ঠিক নয়। তবে যান্ত্রিক গলোযেগের কারণে দিল্লির এলএনজেপি হাসপাতাল ও মুম্বইয়ের দুটি হাসপাতাল এই ভেন্টিলেটর ফিরত দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু সেই দাবিও মানতে নারাজ সংস্থার প্রধান। তিনি বলেন এলএনজেপি হাসপাতাল তাঁদের তৈরি ভেন্টিলেটর প্রত্যাখান করেনি। আর মুম্বইয়ের দুটি হাসপাতাল তৃতীয় একটি সংস্থাকে দিয়ে ভেন্টিলেটর ইনস্টল করেছিল।  ইস্টলেশনে সমস্যা ছিল বলেও অভিযোগ করেন তিনি।