করোনার থাবা ভারতে। প্রকোপ আটকাতে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। রবিবার জমায়ের ঠেকাতে বৃহস্পতিবারই জনতা কার্ফুর কথা ঘোষণা করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। রবিবার সকাল সাতটা থেকে শুরু করে রাত নটা পর্যন্ত কার্ফু জারি করার ফলে এবার একাধিক রেল পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা জানান হল। 

 

 

শুক্রবার বাতিল হয়েছে মোটের ওপর ৯০টি ট্রেন। এখনও পর্যন্ত করোনার প্রকোপ ঠেকাতে বাতিল হয়েছে ২৪৫টি ট্রেন। প্রয়োজন ছাড়া দিল্লি মেট্রোতেও যাত্রীদের উঠতে নিষেধ করা হয়েছে। এমনই পরিস্থিতিতে জনতা কার্ফু সার্থক করতে শনিবার রাত বারোটা থেকেই বন্ধ রাখা হবে রেল চলাচল। 

 

 

সূত্রের খবর অনুযায়ী রবিবার রাত দশটা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে লোকাল ট্রেন চলাচল। পাশাপাশি ভোর চারটে থেকে বন্ধ করা হবে দুর পাল্লার ট্রেন। খবর প্রকাশ্যে আসার পর খানিকটা অস্বস্তিতে পড়তে হয় যাত্রীদের। কিন্তু প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বেড়তে নিষেধাজ্ঞা জারি করার ফলে সাধারণ মানুষ এমনই পরিকল্পনা করছেন না বাড়ি থেকে বেরনোর। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়তে থাকছে। শুক্রবার শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ২২৩ জন। রবিবার থেকে বন্ধ আইআরসিটিসি স্টল।