রাজস্থান স্পিকারের বিরুদ্ধে শচীন পাইলট ও তাঁর ১৮ অনুগামীর দায়ের করা মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী সোমবার। সকাল  ১০টাতেই শুনানি হবে বলেও জানা গেছে।  পাশাপাশি আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত স্পিকারের পাঠান নোটিশের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করেছে রাজস্থান হাইকোর্ট। আদালতের তরফে বলা হয়েছে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে পাঁচনা পর্যন্ত শচীন পাইলট ও তাঁর সহযোগীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারবেন না স্পিকার। বিদ্রোহী কংগ্রেস নেতা শচীন পাইলট ও তাঁর অনুগামীরা গতকালই স্পিকারের নোটিশের বিরোধিতা করে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন। 

শচীন পাইলটের পক্ষে সওয়াল করেন বিখ্যাত আইনজীবী হরিশ সালভে। তিনি বলেন পাইলট ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে স্পিকারের পাঠান নোটিশ পুরোপুরি অবৈধ। রাজস্থানের বাইরে থাকা বিধায়কদের এবার মুক্তিদেওয়া উচিৎ বলেও দাবি করেন তিনি। পাল্টা অভিষেক মনুসিংভি বলেন, স্পিকারের নোটিশ যুক্তযুক্ত বলেও দাবি করেন। উল্টে পাইলটের আবেদন অবৈধ বলে সওয়াল করেন। যদিও হরিশ সালভের যুক্তি ছিল বাড়ি ও হোটেল সভা করার জন্য উপযুক্ত জায়গা হতে পারে না। শুধুমাত্র বিধানসভায় উপস্থিতির জন্যই হুইপ জারি করা যেতে পারে। 


হরিশ সালভের যুক্তি ছিল সরকার ফেলে দেওয়ার পরিস্থিতি তৈরি করা খুবই অসঙ্গত। কিন্তু দূর্ণীতিগ্রস্ত মুখ খোলা বাকস্বাধীনতা আইনের অন্তর্গত। পাশাপাশি তিনি বলেন এটি মৌলিক অধিকারও। বিধায়ক হিসেবে সরকার ফেলে দেওয়ার মত কোনও কাজই হয়নি। পাশাপাশি তাঁর যুক্তি ছিল বাড়ির বাইরে  থেকে কাজ করা অ্যান্টি ডেফিসিয়েন আইন লঙ্ঘন নয়। চিফ হুইপের জবাব দেওয়ার জন্য কংগ্রেস তিন দিস সময় চাইলে শচীন পাইলটের শিবির কোনও আপত্তি জানায়নি। 

শচীন পাইলটের অবস্থান নিয়ে ধোঁয়াশা, কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আদালতে গেলেও চিদম্বরম-সিংভিকে কী বললেন ...

জয়ের পরেও অশোক গেহলটের 'গলার কাঁটা' শচীন পাইলট, রাহুল না জ্যোতিরাদিত্য কাকে বাছবেন বিদ্রোহী নেতা ...