আর মাত্র ৩৬ থেকে ৪০ মাসের অপেক্ষা। তারপরই অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে জ্বলজ্বল করবে রামলাল্লার মন্দির। শুরু হয়ে গেল ঐতিহাসিক মন্দিরের নির্মাণকাজ। বৃহস্পতিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় এমনটাই জানানো হয়েছে শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ট্রাস্ট-এর পক্ষ থেকে।

এদিন টুইট করে শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ট্রাস্ট জানিয়েছে, মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। সিবিআরআই রুরকি, আইআইটি মাদ্রাসা এবং লার্সেন অ্যান্ড টার্বো সংস্থার ইঞ্জিনিয়াররা এখন নির্মাণস্থলের মাটি পরীক্ষা করছেন। ৩৬ থেকে ৪০ মাসের মধ্যেই এই নির্মাণ কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। ট্রাস্ট আরও বলেছে, রাম মন্দির 'ভারতের প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী নির্মাণ কৌশল' মেনেই নির্মিত হবে। ঝড়, ভূমিকম্প ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগের মোকাবিলা করার সক্ষমতা থাকবে মন্দিরটির, বিপর্যয়ে কোনও ক্ষয়ক্ষতি হবে না। তবে, রামমন্দিরের স্থাপত্যে কোনও লোহা ব্যবহার করা হবে না।

গত ৫ অগাস্ট এই মন্দিরের ভূমি পুজো সম্পন্ন হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। উপস্থিত ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত, ট্রাস্টের চেয়ারপার্সন নৃত্যগোপাল দাস, বিজেপি নেতা উমা ভারতী, উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দিবেন প্যাটেল, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের বিশিষ্ট সাধু-সন্ন্যাসী এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।