ধর্ষণের মত ঘটনা রুখতে পারে একমাত্র মহিলাদের সংস্কার। হাথরসকাণ্ডের উত্তজেনার মধ্যেই এমনই নিদান দিলেন উত্তর প্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। বালিয়াকাণ্ডের এই বিধায়ক আরও বলেছেন, সংস্কার আর সরকার ঐক্যবদ্ধ হলে তবেই তৈরি হবে হবে সুন্দর ভারত। হাথরসকাণ্ডে বিরোধীদের সমালোচনা রীতিমত অস্বস্তি বাড়িয়েছে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের। বিরোধীদের অভিযোগ উত্তর প্রদেশে মোটেও রামরাজত্ব চলছে না সেখানে জঙ্গলের রাজত্ব চলছে। তারই পরিপ্রক্ষিতে কী করে এই অস্বস্তিকর অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায়, তা জানতে চাওয়া হলে উত্তর প্রদেশের বিজেপি বিধায়ক জানান শাসন আর তলোয়াল কখনই ধর্ষণ বন্ধ করতে সক্ষম নয়। 

বিজেপি বিধায়র সুরেন্দ্র সিং বলেছেন, তিনি একজন বিধায়ক হওয়ার পাশাপাশি একজন শিক্ষকও। তাই তাঁর উপলদ্ধি থেকেই এই কথা বলছেন। তিনি আরও বলেন, প্রত্যেক মেয়ের বাবা মায়ের উচিৎ  মেয়ে বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে সুশিক্ষা, সংস্কার দেওয়া। পাশাপাশি মেয়েদের ভালো আচরণ শেখানো আর ভালো পরিবেশে বড় করে তোলা উচিৎ প্রত্যেক অভিভাবকের। তাঁর কথায় সরকার আর জনপ্রতিধিদের যেমন নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব রয়েছে, তেমনই  মেয়েদের সুশিক্ষা দেওয়া একটা গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য অভিভাবকদের। 

বিজেপির এই জনপ্রতিনিধি এই প্রথম বিতর্কিত মন্তব্য করেননি, এর আগেও একাধিকবার এমন মন্তব্য করেছেন। সুরেন্দ্র সিং আগেই বলেছিন মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসে মোটেও সন্ত্রাসবাদী নন। তিনি একটি ভুল করেছেন মাত্র। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও নিশানা করেছিলেন তিনি। বলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় একজন নিষ্ঠুর মনের মানুষ। যা নিয়ে রীতিমত সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে।