২৬-১১ মুম্বই হামলার পর ১১টা বছর কেটে গিয়েছে। কিন্তু ভারতবাসীর মন থেকে সেই হামলার ক্ষত এখনও জুড়ায়নি। এদিন বহু মানুষ বিশেষ করে মুম্বইবাসী, সোশ্যাল মিডিয়ায় ২৬-১১'র ঘটনায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন শিল্পপতি রতন টাটা-ও। হামলায় রতন টাটার দাদু জামশেদজি টাটা স্থাপিত হোটেল তাজ-এর ৩১ জন কর্মী ও আরও অনেক গেস্ট নিহত হয়েছিলেন। এদিন নরম শব্দ ব্যবহার করেও জঙ্গিদের চরম বার্তা দিলেন তিনি।

এদিন তিনি সেই ভয়বহ দিনের কথা স্মরণ করতে গিয়ে একচটি ছবি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, সেইসঙ্গে রয়েছে এক অনবদ্য বার্তা। ছবিতে রতন টাটাকে দেখা যাচ্ছে হামলার দিন অসহায়ভাবে তাজ হোটেলের বাইরে মুম্বই পুলিশের কয়েকজন কর্মীর সঙ্গে দাঁড়িয়ে থাকতে।

সঙ্গের বার্তায় তিনি লিখেছেন, ওই দিন যখন ভিতরে ওই মারণলীলা চালাচ্ছিল জঙ্গিরা, সেই সময় বাইরে দাঁড়িয়ে যে অসহায়তা তিনি অনুভব করেছিলেন, তা আজও তাঁকে বেদনা দেয়। হোটেল, থেকে হাসপাতাল, রেল স্টেশন - যা ঘটেছিল তা কখনও ভোলা না গেলেও, ওই সময়ে মুম্বই শহর যে একতা ও ঘুরে দাঁড়ানোর মেজাজ দেখিয়েছিল সেটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

২০০৮ সালের ওই হামলায় হোটেল তাজের একটা বড় অংশ  ক্ষতিগ্র্ত হয়েছিল। কিন্তু রতন টাটা একমাসের মধ্যেই ফের হোটেলের দরজা অতিথিদের জন্য খুলে দিয়েছিলেন। তবে ক্ষতিগ্রস্ত অংশ সাড়াতে আরও ২১ মাস লেগেছিল। পরে হোটেলের ভিতর জঙ্গি হামলায় নিহত হোটেলকর্মী ও অতিথিদের স্মরণে একটি ১২ ফুট উঁচু সৌধও নির্মাণ করেন। হোটেল তাজের দরজা খোলার সময় রতন টাটা বলেছিলেন 'আমরা আহত হতে পারি, কিন্তু ছিটকে দেওয়া যাবে না'। এদিনও সেই কথারই পুনরাবৃত্তি করেছেন তিনি।