জঙ্গি হামলা হতে হতে পারে এদেশে বিদেশি পর্যটকদের অন্যতম ডেস্টিনেশন গোয়াতে। সূত্রের খবর, এমন সতর্কবার্তাই নাকি দিয়েছেন গোয়েন্দা আধিকারিকরা। আর তার পরেই উত্তর গোয়ায় ১৪৪ ধারা জারি করল গোয়া প্রশাসন।

দেশের পশ্চিম উপকূলে হামলার ছক কষছে সন্ত্রাসবাদীরা। তাই এমন খবর পাওয়ার পর আর ঝুঁকি নিতে চায়নি গোয়া সরকার। আপাতত ৬০ দিনের জন্য জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে আপাতত ১০ এপ্রিল পর্যন্ত এই ১৪৪ ধারা বলবত রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন উত্তর গোয়ার জেলাশাসক আর মেনাকা। 

সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি, ভারতের পশ্চিম উপকূলে সম্ভাব্য হামলার হুমকি এবং গোয়ায় সমাজবিরোধী কাজের পরিপ্রেক্ষিতে গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টি বিবেচনা করে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। 

"নাগরিকদের প্রাণ রক্ষা করা ও দেশের নিরাপত্তা বিঘ্নিত করে এমন সন্ত্রাসী হামলার রোধ করতে এই পদক্ষেপ প্রয়োজন ছিল", এমনটাই জানিয়েছেন শ্রীমতী মেনাকা। 

১৪৪ ধারা জারির ফলে বর্তমানে উত্তর গোয়ায় কোনও অসামরিক ব্যক্তি লাঠি, ধারালো অস্ত্র বা আগ্নেয়ান্ত্র নিয়ে জনবহুল স্থানে যেতে পারবেন না। পাঁচ বা তার বেশি সংখ্যক ব্যক্তির জমায়েতের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। একমাত্র নিরাপত্তা বাহিনী, আধা সামরিক বাহিনী বা পুলিশ এই অস্ত্র বহনের অধিকারী থাকবেন।

এদিকে শুক্রবারই পুলওয়ামা হামলার একবছর পূর্তী হল। গতবছর ১৪ এপ্রিল কাশ্মীরে  সিআরপিএফ জওয়ানদের উপর জঙ্গি হামলা ঘটনা ঘটেছিল। যাতে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৪০ বেশি সিআরপিএফ জওয়ান।