শনিবার সকাল ১১ টায় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ সংসদে এই দশকের প্রথম কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করবেন। কিন্তু, তার আগে মার্কেট বেঞ্চমার্ক সেনসেক্স, এবং নিফটি বেশ ঝিমিয়েই রয়েছে। এদিন বাজার শুরুর সময় দুই ইনডেক্স-ই ০.৪৮ শতাংশ পতন দিয়ে শুরু করে। পরে অবশ্য অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়ে সেনসেক্স ৪০,৭২৫ এবং নিফটি ১১,৯৬২-তে ট্রেড করছে।

টেক মাহিন্দ্রা, পাওয়ারগ্রিড, টাটা স্টিল, এনটিপিসি, কোটাক ব্যাঙ্ক, এইচসিএল টেকজ-এর মতো সংস্থার শেযারের দর সবচেয়ে কম যাচ্ছে, ৩ শতাংশ পর্যন্ত নিচে রয়েছে তাদের শেয়ারের মূল্য। অন্যদিকে, এইচইউএল, আল্ট্রাটেক সিমেন্ট, মারুতি এবং এশিয়ান পেইন্টস লাভের মুখ দেখেছে। প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ৩১৯ টাকা কমে ৪০,৬৫৬ টাকায় দাঁড়িয়েছে।  

তবে শেয়ার বাজারে এই মন্দার পিছনে ভারতের বাজেট নয়, বিশেষজ্ঞদের মতে বিশ্বব্যাপী বাণিজ্যে উত্তেজনা এবং চিনে করোনাভাইরাস-এর প্রাদুর্ভাব দায়ি। করোনা ভাইরাসে এখনও পর্যন্ত ২০০-রও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এতে করে আন্তঃসীমান্ত বাণিজ্য এবং সরবরাহ চেইনগুলির ব্যবসার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ফলে অর্থনীতির পুনরুদ্ধারের জন্য সম্পূর্ণ নতুন একটি ঝুঁকি তৈরি হয়েছে বলা যেতে পারে।

কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ হলে শেয়ারবাজার চাঙ্গা হয় কিনা সেটাই এখন দেখার।