৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে শাহিনবাগে আন্দোলন চলছে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বা সিএএ-র বিরুদ্ধে। শাহিনবাগের এই আন্দোলন-কে থামিয়ে দিতে এবার কেন্দ্রীয় সরকার বলপ্রয়োগ করতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করলেন এআইমিম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। শাহিনবাগ-কে বিজেপি সরকার জালিয়ানওয়ালাবাগ-এ পরিণত করতে পারে বলে সতর্ক করলেন তিনি।  

বুধবার সংবাদসংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ওয়াইসিকে প্রশ্ন করা হয়, সরকারের পক্ষ থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, ৮ ই ফেব্রুয়ারি দিল্লির ভোটের পর শাহিনবাগ এলাকা সাফ হয়ে যাবে। কারণ দিল্লির ভোটকে মাথায় রেখেই বিজেপি-কে বিপাকে ফেলতে রাজনৈতিক ষড়ষন্ত্র করে এই আন্দোলন সংগঠিত করা হচ্ছে।   

এর জবাবে ওয়াইসি বলেন, হতেই পারে সরকারের পক্ষ থেকে শাহিনবাগের প্রতিবাদীদের গুলি করে হঠিয়ে দেওয়া হল। শাহীনবাগ-কে জালিয়ানওয়ালাবাগে পরিণত করতে পারে। এমনটা হতেই পারে কারণ বিজেপি মন্ত্রীরা একের পর এক 'গুলি চালানোর' উসকানি দিয়েছেন। কারা কট্টরপন্থাকে ছড়িয়ে দিচ্ছে, তার জবাব দিতে সরকারকে।

মঙ্গলবার, সংসদে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত দেশ জুড়ে এনআরসি করা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে ওয়াইসির দাবি, ২০২৪ সালের মধ্যে এনআরসি কার্যকর করা হবে কি হবে না, এই বিষয়ে স্পষ্ট জবাব দিতে হবে সরকারকে। জানাতে হবে কেন এনপিআর-এর জন্য তাদের ৩৯০০ কোটি টাকা ব্যয় করতে হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, তিনি একজন ইতিহাসের ছাত্র ছিলেন, তাই এই এনপিআর-এ তিনি সিঁদুরে মেঘ দেখছেন। হিটলার-ও তাঁর শাসনকালে দু'বার জনগণনা করেছিল এবং তারপর, তিনি ইহুদিদের গ্যাস চেম্বারে ঠেলে দিয়েছিলেন। ওয়াইসি বলেন, তিনি চান না, ভারতও সেই পথেই চলুক।