Asianet News BanglaAsianet News Bangla

আত্মকেন্দ্রিক সরকারের আত্মকথন দেখা গেল স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে-মোদী সরকারকে তুলোধনা সনিয়া গান্ধীর

নরেন্দ্র মোদী স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানানোর পর নিজের বিবৃতি দেন সনিয়া গান্ধী। তিনি বলেন "গত ৭৫ বছরে, ভারত প্রতিভাবান ভারতীয়দের কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বিজ্ঞান, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, তথ্য প্রযুক্তি এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী চিহ্ন তৈরি করেছে। তার কৃতিত্ব নিতে চায় বিজেপি সরকার।" 

Sonia Gandhi's I-Day message: Oppose this 'self-obsessed' government bpsb
Author
First Published Aug 15, 2022, 5:56 PM IST

স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তৃতার পরে, কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি, সনিয়া গান্ধী প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন। সনিয়া মোদীকে কোণঠাসা করে বলেন, “রাজনৈতিক সুবিধার জন্য ঐতিহাসিক তথ্যের উপর করা ভুল বিবৃতি দিচ্ছে বিজেপি। গান্ধী-নেহরু-প্যাটেল-আজাদের মতো মহান জাতীয় নেতাদের কার্যকলাপকে চ্যালেঞ্জ করার চেষ্টা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই অপচেষ্টার বিরোধিতা করবে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস। "

নরেন্দ্র মোদী স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানানোর পর নিজের বিবৃতি দেন সনিয়া গান্ধী। তিনি বলেন "গত ৭৫ বছরে, ভারত প্রতিভাবান ভারতীয়দের কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বিজ্ঞান, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, তথ্য প্রযুক্তি এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাপী চিহ্ন তৈরি করেছে। তার কৃতিত্ব নিতে চায় বিজেপি সরকার।" 

কংগ্রেস কর্ণাটক সরকারের সংবাদপত্রের বিজ্ঞাপনের ছবির কড়া সমালোচনা করেছে। এই ছবিতে ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুকে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে কর্ণাটক সরকার। তার বার্তায়, সনিয়া গান্ধী বলেন: 'বন্ধুরা, আমরা গত ৭৫ বছরে অনেক কিছু অর্জন করেছি, কিন্তু আজকের আত্মমগ্ন সরকার আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মহান আত্মত্যাগ এবং দেশের গৌরবময় অর্জনকে তুচ্ছ করতে উদ্যত, যা কখনই হতে পারে না। একে হতে দেওয়া যায় না।'

তিনি আরও বলেন যে কংগ্রেস মহাত্মা গান্ধী, জওহরলাল নেহেরু, আবুল কালাম আজাদ এবং সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের মতো নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ছড়ানোর প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করবে এবং ঐতিহাসিক তথ্যের যে কোনও ভুল বর্ণনার তীব্র বিরোধিতা করবে।

সনিয়া গান্ধী বলেছিলেন যে ভারত, গত ৭৫ বছরে তার প্রতিভাবান ব্যক্তিদের কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে, স্বাস্থ্য, বিজ্ঞান, শিক্ষা এবং তথ্য প্রযুক্তি সহ সমস্ত ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একটি অমোঘ চিহ্ন রেখে গেছে। কংগ্রেস প্রধান আরও বলেন যে ভারত তার দূরদর্শী নেতাদের নেতৃত্বে একটি অবাধ, সুষ্ঠু এবং স্বচ্ছ নির্বাচন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছে, এর গণতন্ত্র এবং এর সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলি। এগুলি ছাড়াও, গান্ধী বলেছিলেন, দেশটি সর্বদা ভাষা, ধর্ম এবং সম্প্রদায়ের বহুত্ববাদে বেঁচে থাকার মাধ্যমে তার পরিচয় তৈরি করেছে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, বর্তমানে বেশ কিছু রাজনীতিবিদ রয়েছেন, যারা দুর্নীতি অভিযোগে অভিযুক্ত। জেলেও গেছেন অনেকে। কিন্তু তারপরেও নিজেদের দলের নেতাকর্মীরা তাদের গৌরবগান গাইছে। দলীয় নেতাদের মহিমান্বিত করছে। যা দেশের উন্নয়নকে পিছিয়ে দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী এই মন্তব্য কি নাম না করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ? এই প্রশ্নটা উঠেই যাচ্ছে। কারণ  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা তৃণমূলের একের পর এক নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। সেক্ষেত্রে মমতা কেন্দ্রীয় এজেন্সির বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন। গতকালও স্বাধীনতা দিসবের অনুষ্ঠানে গিয়ে গরু পাচারকাাণ্ডে অভিযুক্ত অনুব্রত মণ্ডলের পক্ষেই সওয়াল করেছেন। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios