আবারও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কাজে গাফিলতির অভিযোগ উঠল স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর। কাজের সময়সীমা শেষ হয়ে গিয়েছে, তাই অচৈতন্য রোগীকে একা ফেলে চলে গেলেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মুজঃফরনগরে। জানা গিয়েছে রাজ্য পরিচালিত সেখানকার একটি কমিউনিটি সেন্টারের এক স্বাস্থ্যকর্মী একজন অবচেতন রোগীকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ভেতরে রেখেই তালাবন্ধ করে বাড়ি চলে গিয়েছেন। সূত্রের খবর, তিনি নাকি জানতেনই না যে, ভেতরে একজন অবচেতন রোগী রয়েছেন। এই ঘটনার জেরে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর কাজে গাফিলতি নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। 

জানা গিয়েছে গত শুক্রবার সোনিয়া নামে ৩০ বছর বয়সী এক মহিলাকে অবচেতন অবস্থায় ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। যে সময়ে তাঁকে ওখানে নিয়ে আসা হয়েছিল তখন চিকিৎসকরা বেরিয়ে গিয়েছেলেন। আর তখনই সাস্থ্যকেন্দ্রে দরজায় তালা লাগিয়ে বাড়ি চলে যান কর্মরত ওই স্বাস্থ্যকর্মী। 

খানিকক্ষণ পর ওই মহিলার জ্ঞান ফিরলে তিনি বুঝতে পারেন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দরজা বাইরে থেকে বন্ধ। এরপর তিনি সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকেন। এরপর স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁর আর্তনাদ শুনে স্থানীয় প্রশাসনকে খবর দিলে তাঁরা এসে তাঁকে উদ্ধার করেন। 

স্বাস্থ্যকেন্দ্রের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তি দাবি করছেন রোগীর বাড়ির লোক। তবে একজন স্বাস্থ্যকর্মী কীভাবে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কাজ করলেন সেই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।