এলাহাবাদ শহরের নাম বদলে প্রয়াগরাজ করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। এই নিয়ে  যোগী আদিত্যনাথ-এর সরকার-কে নোটিশ পাঠালো সুপ্রিম কোর্ট। এই বিষয়ে উত্তরপ্রদেশেরই এক ব্য়ক্তি জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন। আবেদনকারী দাবি করেছিলেন রেলস্টেশন, কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলির নাম রাজ্য সরকার বদলাতে পারে না। সেই মামলার শুনানির পরই এদিন এই নোটিশ পাঠিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই বিষয়ে সরকারের জবাব চাওয়া হয়েছে।      

এর আগে এলাহাবাদ শহরের নাম পাল্টে প্রয়াগরাজ করার সময় উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকার যুক্তি দিয়েছিল ৫০০ বছর আগে মুঘল সম্রাট আকবর যে ভুল করেছিলেন, তারা সেটিই সংশোধন করছেন। আকবর নাম পাল্টে দিয়েছিলেন, তাঁরা শহরের আসল নাম ফিরিয়ে আনছেন। তবে সেই সময়ই এই নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়েছিল বিরোধী দলগুলি। চরম বিরোধিতা এসেছিল ঐতিহাসিক, পুরাতত্ত্ববি-সহ শিক্ষাজগৎ থেকেও। তাঁরা অভিযোগ করেছিলেন এইভাবে উত্তরপ্রদেশ সরকার ইতিহাসকে মুছে দিতে চাইছে।

১৫৭৫ সালে প্রয়াগ থেকে পাল্টে শহরের নাম এলাহাবাদ হয়েছিল। মুঘল সম্রাট আকবর এই শহরকে 'ইলাহাবাস' বলতেন। 'ইলাহাবাস' কথার অর্থ ঈশ্বরের বাসভূমি। আকবরের হাতে এই শহরের পুনর্গঠনের আগে এটি প্রয়াগ নামেই পরিচিত ছিল। আকবরের রাজসভার ইতিহাসবিদ আবুল ফজল-সহ মধ্যযুগীয় বেশ কিছু গ্রন্থে এই শহরকে পিয়াগ বলে অভিহিত করা হয়েছে। এমনকী ঋগ্বেদ এবং কয়েকটি পুরাণ-এও প্রয়াগ শহরের উল্লেখ রয়েছে।

এবার আদালতকে উত্তরপ্রদেশ রাজ্য সরকার কি জবাব দেয় সেটাই দেখার। তবে অতি সম্প্রতি আরও বেশ কয়েকটি রেল স্টেশনে উত্তরপ্রদেশ সরকার উর্দু হরফে লেখা নাম সরিয়ে সংস্কৃতে লেখা হবে বলে ঘোষণা করেছে সরকার। এর মধ্য়েই এই নোটিশ এল শীর্ষ আদালত থেকে।